করোনা আক্রান্ত হলে বিচারকরা অগ্রিম পাবেন চিকিত্‍সার ৮০ শতাংশ টাকা, সিদ্ধান্ত হাইকোর্টের

রাজেন রায়, কলকাতা, ১৯ জুন: করোনা মহামারীর মতো পরিস্থিতিতেও রাজ্যে গুরুত্বপূর্ণ মামলাগুলির বিচারপ্রক্রিয়া যাতে ব্যহত না হয়, তার জন্য কোথাও সশরীরে আবার কোথাও ক্রমাগত ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমেও সক্রিয় বিচারকরা। সম্প্রতি আলিপুর আদালতে ২ বিচারক করোনা সংক্রামিত হয়েছিলেন। রাজ্যের বিচার ব্যবস্থায় বিচারকদের করোনা চিকিৎসায় পাশে থাকার বার্তা কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি টি বি রাধাকৃষ্ণণ বৃহস্পতিবার জানান, এবার থেকে করোনা আক্রান্ত হলে চিকিৎসার ৮০ শতাংশ টাকা অগ্রিম পাবেন বিচারকরা। আগে নিজে থেকে খরচ করে পরে এই টাকা পাওয়ার জন্য আবেদন করতে হত বিচারকদের।

প্রধান বিচারপতির নির্দেশেই বিচারকদের করোনা চিকিৎসা নিয়ে নতুন নির্দেশিকা জারি করেছেন কলকাতা হাইকোর্ট রেজিস্ট্রার জেনারেল রাই চট্টোপাধ্যায়। নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, বিচারকরা করোনা আক্রান্ত হলে পাওয়া যাবে এককালীন চিকিৎসার ৮০ শতাংশ অগ্রিম টাকা। জেলার ক্ষেত্রে জেলা বিচারক এবং নগর দায়রা ও নগর দেওয়ানি আদালতের ক্ষেত্রে মুখ্য বিচারকদের কাছে টেলিফোনে করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর জানিয়ে দিতে হবে। হোয়াটসঅ্যাপে ছবি তুলে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাঠিয়ে দিতে পারে তার পরিবার। রাজ্যের বিচারবিভাগীয় সচিবের অনুমতি নিয়ে বাকি কাজ জেলা বিচারক বা মুখ্য বিচারকের অফিস নিজে থেকেই করে নেবে। এভাবে করোনা আক্রান্ত বিচারকদের ক্ষেত্রে পাশে থাকবে হাইকোর্ট।

প্রসঙ্গত, এতদিন চিকিৎসার খরচের অগ্রিম নিতে হলে রাজ্যের বিচারবিভাগীয় সচিবের কাছে আবেদন করতে হত। আবেদন মঞ্জুর হলে তা ফিরে আসতে সংশ্লিষ্ট জেলা জজ’দের কাছে। জেলা জজরা সেই আবেদন মঞ্জুর করে দিলে তা পাঠানো হতো পে অ্যান্ড অ্যাকাউন্টসে। সেখান থেকে মিলত টাকা। সমস্ত প্রক্রিয়াটি ছিল যথেষ্ট জটিল এবং সময় সাপেক্ষ। পরিস্থিতির স্বার্থে গোটা প্রক্রিয়াকে সরলীকরণ করা হল। তবে অনেকদিন আগে থেকেই এ প্রক্রিয়া সরলীকরণের দাবি করেছিলেন বিচারকরা। করোনা পরিস্থিতির কারণেই যেন সেটা সম্ভব হল। রাজ্যে বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে করোনা চিকিৎসার মূল্য কিছু ক্ষেত্রে বেশি হওয়ায় এই মুহূর্তে অগ্রিম টাকা না পেলে বিচারকদের সমস্যা বাড়তে পারে। সেই কারণেই এবার এই সিদ্ধান্তে অনুমোদন দিল হাইকোর্ট বলে সূত্রের খবর।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here