তৃণমূল বাড়াবাড়ি করলে গঙ্গার ঘাটে তর্পনের জন্য লাইন লেগে যাবে: জয়

আমাদের ভারত, ১৬ সেপ্টেম্বর: বিজেপির সঙ্গীসাথী ভাই যারা শহীদ হয়েছেন তাদের জন্য তর্পণ করতে গেলেও গঙ্গার ঘাটে বাধা দেওয়া হচ্ছে। এটা বড্ড বাড়াবাড়ি হচ্ছে। বুধবার নদীয়ার কল্যাণীতে ‘আর নয় অন্যায়” কর্মসূচিতে যোগ দিতে এসে এই কথা বলেন বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

আজ কলকাতায় গঙ্গার ঘাটে বিজেপি নেতৃত্বের তর্পণ করার কথা ছিল। যেসব বিজেপি কর্মী খুন হয়েছেন, তাদের জন্যই এই তর্পনের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। কিন্তু তর্পনের আগেই মুকুল রায়, কৈলাস বিজয়বর্গীয় এবং রাহুল সিনহা কে আটকে দেয় পুলিশ। সেই প্রসঙ্গ তুলে জয় বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, আগামী জুন মাসে বিজেপি রাজ্য ক্ষমতায় আসবে। আর সেপ্টেম্বর অক্টোবর মাসে মহালয়া। আর যদি তৃণমূল এইভাবে বাড়াবাড়ি চালিয়ে যেতে থাকে তাহলে আগামী দিনে গঙ্গার ঘাটে তর্পণ করার জন্য লাইন লেগে যাবে বলে হুঁশিয়ারি দিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন তিনি বলেন, তাই যেটা হচ্ছে হতে দিন। বিজেপি কর্মীদের উত্তেজিত করবেন না। জয় বলেন, তৃণমূল নরেন্দ্র মোদীর কাছে হেরে গেছে। যতই ওরা প্রশান্ত কিশোর’কে নিয়ে আসুক না কেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর বুদ্ধির কাছে উনি শিশু। এদিন জয় বলেন, বিজেপি যেখানেই সভা করছে সেখানেই তৃণমূল বাধা দিচ্ছে। আমরা বলছি গণতান্ত্রিক পদ্ধতিগুলি কর, মানুষ যাকে ভালবাসবে তাকে বেছে নেবে। কিন্তু ওরা সেটা শুনছে না। যদিও আর মাত্র কয়েকটা মাস, তারপর এই সব চিত্র পাল্টে যাবে।

এদিন শহীদ পরিবারের উদ্দেশ্যে জয় বলেন, শহীদদের আত্মত্যাগ বৃথা যাবে না। যারা খুন করে ভাবছে লুকিয়ে থাকবে বিজেপি ক্ষমতায় আসলে তাদের মাটির তলা থেকে বের করে এনে শাস্তি দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন। তিনি বলেন, দেশের সব রাজ্য যখন এগোচ্ছে তখন বাংলা ক্রমশঃ পিছিয়ে যাচ্ছে। আর এই বাংলাকে আবার সোনার বাংলায় ফেরাতে পারে একমাত্র বিজেপি। আর সেই জন্যই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এক সাথে হাত মিলিয়ে বাংলায় বিজেপিকে ক্ষমতায় আনার শপথ নিয়েছেন।

এদিনের এই অনুষ্ঠানে ৩৫টি পরিবার থেকে শতাধিক মানুষ বিজেপিতে যোগ দেন। দলে যোগ দেওয়া কর্মীদের হাতে পতাকা তুলে দেন বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here