নির্বিকার পৌর প্রশাসন, জমা জল বের করতে উদ্যোগ বিজেপি নেতার 

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ৫ অক্টোবর: টানা বর্ষনে প্লাবিত পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার অধিকাংশ এলাকা। ঘাটাল পৌরসভার একাধিক ওয়ার্ড যেমন এখনও জলের তলায় সেরকমই মেদিনীপুর পৌরসভারও একাধিক ওয়ার্ড জলমগ্ন। পৌরসভা জল নিকাশের কোনও ব্যবস্থা না করায় অবশেষে পাম্প বসিয়ে সেই কাজ করলেন স্থানীয় বিজেপি নেতা।

মেদিনীপুর পৌরসভার বাসিন্দাদের দীর্ঘদিনের অভিযোগ, জল নিকাশি ব্যবস্থার বেহাল দশার জন্যই এই ভোগান্তি। একাধিক বাড়িতে জল ঢুকে পড়ায় সাধারণ মানুষকে নাজেহাল হতে হয়েছে। এই দুর্বিসহ পরিস্থিতির সম্মুখীন মেদিনীপুর পৌরসভার ১৮নং ওয়ার্ডের মাহতাবপুর চাষী পাড়ার গণপতী নগর এলাকার কয়েকশ পরিবার। বৃষ্টি থামার পর একাধিক ওয়ার্ডের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও এখনও জল যন্ত্রণা থেকে মুক্তি মেলেনি ১৮নং ওয়ার্ডের এই সব পরিবারের। এলাকার প্রাক্তন কাউন্সিলার তথা বর্তমানে মেদিনীপুর পৌরসভার প্রশাসক সৌমেন খান এই জল যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দিতে জেসিবি দিয়ে রাস্তা খুড়ে জল বের করার চেষ্টা করলেও বিফলে যায় সেই চেষ্টা। এলাকাবাসীদের ক্ষোভ দীর্ঘদিন কাউন্সিলালের দেখা নেই। নেই কোনও ড্রেনেজ ব্যবস্থা। রাস্তা খুঁড়ে জল বের করানোর সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ ভুল বলেই দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের।

এলাকায় জল জমে থাকায় ঘর ছাড়া রয়েছে একাধিক পরিবার। এলাকাবাসীদের আরও দাবি, বার বার বলা সত্ত্বেও প্রাক্তন কাউন্সিলার তথা পৌরসভার প্রশাসক সৌমেন খান পৌরসভা থেকে কোনও রকম সাহায্য ও সহযোগিতার ব্যবস্থা করেননি। এমনিতেই দীর্ঘদিন পৌর ভোট না হওয়ার কারণে বিভিন্ন পৌর পরিষেবা ব্যাহত। এই অবস্থায় ১৮ নং ওয়ার্ডের জমে থাকা এই জল বের করতে উদ্যোগ নিলেন ওয়ার্ডের স্থানীয় বিজেপি নেতা মিলন মাইতি। তার প্রচেষ্টায় পাম্প বসিয়ে দীর্ঘ পাইপ লাইন করে নদীতে জল বের করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার ১৮ নং ওয়ার্ডের এই চাষিপাড়া পরিদর্শনে আসেন বিজেপির সাধারণ সম্পাদক শঙ্কর গুছাইত, তিনি বলেন, এলাকার প্রাক্তন কাউন্সিলার সৌমেন খান পেছনের দরজা দিয়ে পৌরসভার প্রশাসক হয়েছেন।দীর্ঘদিন পৌরসভার নির্বাচন করেনি শাসক দল এবং গত বিধানসভা ও লোকসভায় ১৮নং ওয়ার্ডে বিজেপি এগিয়ে, তাই ভয় পেয়েছেন সৌমেন খান।  সাধারণ মানুষ ঠিক জবাব দেবেন আগামী পৌর ভোটে। 

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here