ভারত ছাড়া পাকিস্তানের চলবে না! বিশ্বমঞ্চে মুখ ফসকে স্বীকার ইমরানের

আমাদের ভারত,২৩ জানুয়ারি: এতদিন
আন্তর্জাতিক স্তরে শুধু ভারতের সমালোচনাতেই বিভোর হয়ে থেকেছে ইমরান সরকার। প্রধানমন্ত্রী হবার পর থেকেইএকের পর এক ইস্যুতে ভারত বিঁধতে ভোলেন নি তিনি। এই বিরোধিতা মারাত্মক হারে বাড়তে থাকে পুলওয়ামা হামলার পরবর্তী সময় থেকে। জঙ্গি হামলার পর পাকিস্তানকে যোগ্য জবাব দিয়েছিল ভারত। এয়ার স্ট্রাইক পর কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েও বিশ্ব দরবারে ভারতের সমালোচনায় মুখর হয়েছে পাকিস্তান। কিন্তু এবার সেই অবস্থান পরিবর্তন করে মুখ ফসকে ভারতের প্রশংসা করে ফেললেন পাক প্রধানমন্ত্রী। বলে ফেললেন পাকিস্তান কতটা নির্ভরশীল ভারতের উপর।

সম্প্রতি দাভোসে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের যোগদান করেন ইমরান খান। আর সেখানেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক হলে তবেই তার এলাকায় বাণিজ্যিক উন্নতি হবে। বাড়বে বাণিজ্যিক সম্ভাবনা। আর তাহলেই উন্নয়ন হবে পাকিস্তানের। ইমরানের এই মন্তব্যের পর স্পষ্ট হয়ে গেল ইমরান সরকার ভারতের সাথে বাণিজ্যিক সম্পর্কের ওপর কতটা নির্ভরশীল।

পাকিস্তানের উন্নয়নের রাস্তা অবরুদ্ধ হয়েছে। তার জন্য ইমরান নিজের পূর্ববর্তী সরকারের নীতিকে দায়ী করে বলেন, “পাকিস্তানের উন্নয়ন ঘটাতে গেলে আমাদের স্ট্রাটেজিক লোকেশন, প্রতিষ্ঠান যুবসমাজকে নিয়ে চেষ্টা চালাতে হবে। আর সেটা সম্ভব হলে পাকিস্তানকে রোখা যাবে না।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, জীবনদায়ী ওষুধ,টমেটো সহ ভারতের একাধিক জিনিসের উপর সরাসরি নির্ভরশীল পাকিস্তান।

দাভোসে ভারত ছাড়াও ইমরানের মুখে এদিন উঠে এলো চীনের প্রশংসা। তিনি বলেন,চীন-পাকিস্তান ইকোনমিক করিডোরের মাধ্যমে পাকিস্তানের অর্থনৈতিক উন্নতিতে সাহায্য করেছে। চীনের সাহায্যে কৃষিতে উন্নতি করেছে পাকিস্তান। বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে চীন সাহায্যের কথা উল্লেখ করেন ইমরান। অন্যদিকে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন ইরানের পরিস্থিতি শান্ত হলে ব্যবসার আরও উন্নতি হবে।

কিন্তু আন্তর্জাতিক স্তরে এইভাবে চীনের প্রশংসা করে মার্কিন মুলুকের চোখে পাকিস্তানের অবস্থান ঠিক কোন স্তরে গেল নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন কূটনৈতিক মহলের একাংশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here