ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত বাণিজ্য আজ থেকে দশমী পর্যন্ত বন্ধ

ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত বাণিজ্য আজ থেকে দশমী পর্যন্ত বন্ধ

তারক ভট্টাচার্য

আমাদের ভারত, ৫ অক্টোবর: দুর্গাপুজোর জন্য ক্লিয়ারিং এজেন্টরা ছুটি নিয়েছেন। তাই টানা চার দিন ধরে বন্ধ থাকছে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত বাণিজ্য। আজ থেকে শুরু হল সেই বন্ধ থাকা। ক্লিয়ারিং এজেন্টস স্টাফ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন সূত্রে একথা জানা গিয়েছে।

এই ব্যাপারে পেট্রাপোল ক্লিয়ারিং এজেন্টস স্টাফ ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী জানিয়েছেন, মহাসপ্তমী থেকে বিজয়া দশমী পর্যন্ত তাঁদের সদস্যরা পুজো উৎসবে সামিল হবেন। এজন্য কেউ ওই দিনগুলোয় কাজে যোগ দেবেন না। স্বাভাবিকভাবে ওই চার দিন তাই সীমান্তে বাণিজ্য বন্ধ থাকবে। বিষয়টি ইতিমধ্যে কলকাতা কাস্টমস হাউস এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান (স্থল), বাংলাদেশের বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ কর্তৃপক্ষ-সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে চিঠি দিয়ে জানিয়েও দেওয়া হয়েছে বলেই কার্তিকবাবু জানিয়েছেন।

তাঁর দাবি, এতে দু’দেশের বাণিজ্যের বিশেষ একটা ক্ষতি হবে না। পুজোয় একটানা বন্ধ থাকার আগেই বেশি বেশি করে আমদানি-রফতানির পণ্যবাহী ট্রাক যাতায়াতের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছিল। ক্লিয়ারিং এজেন্টদের দাবি, এর ফলেই নাকি পেট্রাপোল সিডব্লিউসি পার্কিং, বনগাঁ পৌরসভার ট্রাক টার্মিনাস ও অন্যত্র পণ্যবাহী ট্রাকের চাপ এমনিতেই অনেকটা কমে গিয়েছে।

যদিও পুলিশ সূত্রে খবর, পুজোর দিনগুলোয় বিভিন্ন রাস্তায় যান নিয়ন্ত্রণ করা হয়। দুর্ঘটনা এড়াতে দর্শনার্থীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে এই নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা থাকে। বিভিন্ন গাড়ি সংগঠনের মালিকদের এই যান নিয়ন্ত্রণের কথা আগে থেকেই জানিয়ে দেওয়া হয়। সেই জন্যই পণ্যবাহী ট্রাক থেকে যাত্রীবাহী বড় গাড়ি পুজোর দিনগুলোয় চলাচল বন্ধ রাখে। আর এই কারণেই পুজোয় বনগাঁ-চাকদা রোড, যশোর রোড, বনগাঁ-বাগদা রোডে বাংলাদেশের পথে যাওয়া পণ্যবাহী ট্রাকের লম্বা সারি দেখা যায় না। এই পরিস্থিতিতে রপ্তানি বন্ধের ফলে হওয়া দেশের আর্থির ক্ষতির দায় কে নেবে, তার জবাব পুলিশ বা ক্লিয়ারিং এজেন্টরা দিতে পারেননি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

six + 13 =

amaderbharat.com

Welcome To Amaderbharat.com, Get Latest Updated News. Please click I accept.