চিন কি ভয় পেল ? চিনা সোশ্যাল মিডিয়া থেকে মুছে দেওয়া হলো মোদীর হুঁশিয়ারি বার্তা

আমাদের ভারত, ২১ জুন:
লাদাখে গালওয়ান উপত্যকায় চিনা আগ্রাসন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর দেওয়া বার্তা মুছে দেওয়া হয়েছে চিনের দুটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে। একইসঙ্গে মুছে দেওয়া হয়েছে বিদেশমন্ত্রকের বক্তব্যও। টুইটারের মতো চিনের অন্যতম সোশ্যাল মিডিয়া, Sina weibo তে বিদেশমন্ত্রকের বক্তব্য মান্দারিন ভাষায় পোস্ট করেছিল ভারতীয় দূতাবাস। চিনা সোশ্যাল মিডিয়া দাবি করেছে এটি তাদের জাতীয় নিরাপত্তাকে বিঘ্নিত করছে।

এটা ছাড়াও ভারতীয় দূতাবাস ভারত–চীন সীমান্ত সমস্যা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য We chat-এ দিয়েছিল। দেওয়া হয়েছিল দু’দেশের বিদেশমন্ত্রী বৈঠকের পর বিদেশ মন্ত্রকের বিবৃতিও। সেটিও মুছে দেওয়া হয়েছে সেখান থেকে। জানানো হয়েছে, বার্তাটি বিধি ভঙ্গ করেছে। এই রকম ভাবে Weibo থেকেও মুছে দেওয়া হয়েছে বিবৃতি।

বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানান, তারা বার্তা দিয়েছিলেন, “চিন নিজেদের ভূখণ্ডে সীমাবদ্ধ থাকুক, কোনও পদক্ষেপ যেন তারা না করে।” গালওয়ানের ঘটনার পর কড়া বার্তা দিয়েছিলেন মোদীও। প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, “ভারত সব সময় শান্তি চায় কিন্তু কেউ উস্কানি দিলে উচিত জবাব দেওয়া হবে।” ওই বক্তব্য দিয়ে We chat-এ পোস্ট করেছিল চিনের ভারতীয় দূতাবাস। সেটিও মুছে দিয়ে করে সংস্থা দাবি করে, প্রকাশকই না কি এটি মুছে দিয়েছেন। কিন্তু ভারতীয় দূতাবাস জানিয়ে দেয় তারা বক্তব্য মুছে দেয়নি। যদিও ভারতীয় দূতাবাস প্রমাণ হিসেবে স্ক্রিনশট দিয়ে ব্যাখ্যা দিয়েছে তারা ঐ বার্তাটি মুছে দেয়নি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, টুইটারের মতো Sina webo কোটি কোটি চিনা নাগরিকের অ্যাকাউন্ট রয়েছে। বছর পাঁচেক আগে চিন সফরের আগে সেখানে অ্যাকাউন্ট খুলে ছিলেন নরেন্দ্র মোদীও। তবে সাম্প্রতিক সময়ের সংঘাত নিয়ে ওই অ্যাকাউন্টে মোদী কোনো বক্তব্য রাখেননি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here