সবে তো ওয়েব সিরিজের শুরু, অপা এপিসোডের পর আরও রোমহর্ষক কাহিনী আসছে, শাহের সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে বললেন সুকান্ত

শ্রীরূপা চক্রবর্তী
আমাদের ভারত, ৪ আগস্ট: রাজ্যের নিয়োগ দুর্নীতিতে এখনো পর্যন্ত পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করেছে ইডি। কিন্তু এই গোটা দুর্নীতির নেপথ্যে আরও অনেকে আছে। ধিরে ধিরে সেই সব তথ্য মানুষের সামনে উঠে আসবে। এই দুর্নীতির মূলে গিয়ে পৌঁছবে তদন্ত। আর তখন এই দুর্নীতির ওয়েব সিরিজের অপা এপিসোডের পর আরও একাধিক এপিসোড আসবে যা হবে রমোহর্ষক। অমিত শাহের সাথে বৈঠক প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে এমনটাই দাবি করেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আজ ধর্মতলায় বিজেপি অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বঙ্গ বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার উপস্থিত ছিলেন। এখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি তৃণমূল কংগ্রেস, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হন। একই সঙ্গে তিনি বলেন, রাজ্য দুর্নীতির পরত সবে খুলতে শুরু করেছে। তদন্ত যত এগোবে নতুন নতুন কাহিনী উঠে আসবে। দিল্লিতে তিনি গতকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। আর তারপর থেকেই গুঞ্জন এই বৈঠকের আলোচ্য বিষয় কি রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি? এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে সুকান্ত মজুমদার। রসিকতার ছলে বলেন, দিদিমণি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে বেরিয়ে মিথ্যে কথা বলে সংবাদ মাধ্যম ও সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করেন। যেমন আগের বার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে বেরিয়ে দিদিমণি বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী কথা দিয়েছেন তিনি বঙ্গ বানিজ্য সম্মেলনে আসবেন। কিন্তু আদৌ তা নয়। তার অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রী মিথ্যে বলে বিভ্রান্ত করেছেন।

গতকাল সুকান্ত মজুমদার নিজে অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করেন। আর সেই বৈঠক প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে রসিকতার সুরে তিনি বলেন, “অমিত শাহের সাথে কি কথা হয়েছে আমার তা বলব না। তবে এটুকু বলতে পারি, অপেক্ষা করুন ওয়েব সিরিজ সবে শুরু হয়েছে। তার মাত্র দুটো এপিসোড হয়েছে। আরও এপিসোড হবে। এক একটা এপিসোডে রমোহর্ষক কাহিনী আসবে। অপা পর্বের আর কত কি পর্ব দেখতে পাবেন তার জন্য অপেক্ষা করুন।”

একই সঙ্গে তিনি বলেন, “চিন্তা করবেন না যে গ্রিন করিডর করে পুলিশ বস্তা করে টাকা পাঠিয়েছে তারাও দিন গুনতে শুরু করুন। ব্যবস্থা নেওয়া হবেই। প্রতিটা চোরকে জেলের ভাত আমরা খাওয়াবই। রাজ্যের দুর্নীতির যে জট খুলতে শুরু করেছি। তার শেষ দেখে ছাড়ব।”

রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী নিয়োগ দুর্নীতির দায়ে ইডি হেফাজতে যাওয়ার পরেই তার ঘনিষ্ঠ অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে কোটি কোটি টাকা উদ্ধার হয়। আর তারপরই পার্থকে মন্ত্রিসভা থেকে সরিয়ে দেন মমতা। সরানো হয় দলের একাধিক পদ থেকেও। এমনকি বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভায় বড়সড় রদবদল করা হয়। কিন্তু এই পুরো প্রক্রিয়াকে আই ওয়াশ বলে অভিযোগ করেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। তিনি সেপ্টেম্বরে
নবান্ন অভিযানের ডাক দিয়েছেন। তার কথায় এই নবান্ন ঘেরাও করে মুখ্যমন্ত্রীকে পদত্যাগে বাধ্য করবেন তারা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here