নিম্ন মানের কাজের অভিযোগ পেয়ে রাস্তার কাজ সরেজমিনে খতিয়ে দেখলেন জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদের কর্তারা

আমাদের ভারত, জলপাইগুড়ি, ২২ সেপ্টেম্বর: রাস্তার নিম্ন মানের কাজের অভিযোগ পেয়ে রাস্তার কাজ সরেজমিনে খতিয়ে দেখলেন জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদের কর্তারা। জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের গণ্ডার মোড় ও মৌলবী পাড়ার বাসিন্দাদের সঙ্গে নিয়ে তৈরি হওয়া দুই কিলোমিটার রাস্তা হাঁটলেন জেলা পরিষদের কর্তারা। গ্রামবাসীদের জেলা পরিষদের কর্তারা আশ্বাস দিয়েছেন, যেখানে রাস্তার কাজ নিম্ন মানের নজরে পরছে তা ঠিক করা হবে।

যদিও গ্রামবাসীদের দাবি, দ্রুত রাস্তা কাজ সঠিক না হলে আবারও আন্দোলনে নামবেন তাঁরা। রাস্তার পাশে সরকারি বোর্ড টাঙিয়ে উল্লেখ করা হয়েছে খড়িয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের গণ্ডার মোড় থেকে মন্ডলঘাট গ্রাম পঞ্চায়েতের ফান্ডিতপাড়া পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কিমি পাকা রাস্তা করা হচ্ছে জেলা পরিষদের উদ্যোগে। রাস্তা তৈরিতে খরচ হবে প্রায় ২৬ লক্ষ টাকা। ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কাজ শেষ করার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়। মাত্র দুই কিমি রাস্তা করা হয়েছে তাও আবার নিম্ন মানের বলে অভিযোগ। গ্রামবাসীরা আন্দোলন ও রাস্তা অবরোধে সামিল হয় বুধবার।

গ্রামবাসী আনিসুর রহমান বলেন,”আমরা অভিযোগ করেছিলাম আজ জেলা পরিষদের কর্তারা এসেছে। আশ্বাস দিয়েছেন রাস্তার কাজ ঠিক করা হবে। কাজ ঠিক না হলে আবার আন্দোলনে যাবো।”

রাস্তা পরিদর্শন করে জেলা পরিষদের সহকারি সভাধিপতি দুলাল দেবনাথ বলেন, “রাস্তার কাজ ইঞ্জিনিয়াররা ভাল বুঝবেন। এই কারণে ইঞ্জিনিয়ার এসেছেন। কিছু জায়গায় রাস্তার কাজ আবারও করা হবে। দুই কিলোমিটার কেন আমি জনসাধারণের জন্য ১৪ কিলোমিটার হাঁটতে পারি। আমি গ্রাম থেকে নির্বাচিত হয়ে জনপ্রতিনিধি হয়েছি।”

এদিন তাঁর সঙ্গে ছিলেন ডিস্ট্রিক্ট ইঞ্জিনিয়ার দেবব্রত নিয়োগী। তিনি বলেন, “রাস্তার কিছু জায়গায় কাজ আবারও করতে বলা হচ্ছে। আগামীকাল থেকে আবার কাজ শুরু হবে।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here