জলে ভাসছে অরণ্য সুন্দরী ঝাড়গ্রাম

অমরজিৎ দে, ঝাড়গ্রাম,১৫ সেপ্টেম্বর: একটানা প্রবল বর্ষণে জলমগ্ন অরণ্য সুন্দরী ঝাড়গ্রাম শহর। সমস্যায় পড়েছেন ঝাড়গ্রাম শহরের বাসিন্দারা। নিম্নচাপের প্রভাবে কয়েকদিনের একটানা প্রবল বৃষ্টিতে জলমগ্ন হয়ে পড়েছে অরণ্য সুন্দরী ঝাড়গ্রাম শহর। ঝাড়গ্রাম শহরের প্রাণকেন্দ্র পাঁচ মাথার মোড়ে পাঁচ নম্বর রাজ্য সড়কের উপর দিয়ে বইছে জলের স্রোত। ঝাড়গ্রাম পৌরসভার ১০, ১১, ১২, ১৩, ১৪, ১৫, ১৬, ১৭ ও ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের বেশ কিছু এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়েছে।

শহরে কোনও নিকাশি ব্যবস্থা না থাকায় নিকাশি ব্যবস্থার দাবি জানিয়ে ৫ নম্বর রাজ্য সড়কের উপর পথ অবরোধ করে বাসিন্দারা। এছাড়াও জেলার বিভিন্ন রাস্তার উপর দিয়ে জল প্রবল স্রোতে বইছে। প্রবল বৃষ্টির ফলে বেশকিছু বাড়িতে জল ঢুকে পড়েছে। বেশ কিছু মাটির বাড়ি ভেঙ্গে পড়েছে। যার ফলে সমস্যায় পড়েছেন ঝাড়গ্রাম পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের বাসিন্দারা। একটানা প্রবল বৃষ্টির ফলে জনজীবন স্তব্ধ হয়ে পড়েছে। রাস্তাঘাট শুনসান, লোকজনের দেখা নেই। যেভাবে বৃষ্টি হচ্ছে তাতে আরও বেশ কিছু এলাকা প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। তাই একটানা বৃষ্টির ফলে অরণ্য সুন্দরী ঝাড়গ্রাম শহর নদীতে পরিণত হয়েছে।

ঝাড়গ্রাম শহরের পাশাপাশি ঝাড়গ্রাম জেলার সাঁকরাইল, জামবনি, বেলপাহাড়ি, লালগড়, বিনপুর, সাঁকরাইল, গোপীবল্লভপুর ১ ও ২, নয়াগ্রাম থানা এলাকার বেশ কিছু জায়গা প্লাবিত হয়েছে। বহু জায়গায় যোগাযোগ ব্যাবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বিভিন্ন নদীতে জল বাড়ছে। যার ফলে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। একটানা প্রবল বৃষ্টির ফলে ধান চাষের পাশাপাশি সবজি চাষের ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করছেন ঝাড়গ্রাম জেলার বাসিন্দারা। ঝাড়গ্রাম জেলায় শতাধিক মাটির বাড়ি ভেঙ্গে পড়েছে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা যায়।

ঝাড়গ্রাম জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে বর্তমান পরিস্থিতির উপর নজর রাখা হয়েছে। জেলা প্রশাসন ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ খতিয়ে দেখার কাজ শুরু করেছে। ডুলুং নদী ও তারা ফেণি নদীর জল বাড়ায় বেশ কিছু জায়গায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। যার ফলে কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে ঝাড়গ্রাম জেলাবাসীর।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here