হাসপাতাল থেকে আসা স্বামী- স্ত্রী ও সদ্যোজাতকে ঘরে ঢুকতে বাধা বাড়িওয়ালার

আমাদের ভারত, হাওড়া, ২৮ এপ্রিল: মনের আনন্দে সদ্যোজাত শিশু কন্যাকে হাসপাতাল থেকে বাড়িতে নিয়ে আসলে বাড়িওয়ালা যে তাদের বাড়িতে ঢুকতে দেবে না সেটা কল্পনাও করতে পারেননি উলুবেড়িয়া নোনা শিবতলার বাসিন্দা শম্পা ও শঙ্খ হাইত। আর বাড়িওয়ালার এই ব্যবহারে হতভম্ব দম্পতি। অনেক অনুনয় বিনয় করেও কোনও লাভ না হওয়ায় শেষে সদ্যোজাত কন্যাকে নিয়ে অন্য একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয় এই দম্পতি।

জানাগেছে, গত দু’বছর ধরে শঙ্খ স্ত্রী ও মা বাবাকে নিয়ে শিবতলায় একটি বাড়িতে ভাড়া থাকে। গত বৃহস্পতিবার উলুবেড়িয়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শম্পা একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। অভিযোগ, সোমবার মা ও মেয়েকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়ার পর শঙ্খ স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে বাড়িতে আসলে বাড়িওয়ালা তাদের বাড়িতে ঢুকতে বাধা দেয়।শঙ্খর অভিযোগ, বাড়িওয়ালা তাদের জানায় এই অবস্থায় কোনও ভাবেই তিনি তাদের বাড়িতে থাকতে দেবেন না। এমনকি ৩০ এপ্রিলের মধ্যে বাড়ি ছেড়ে দেওয়ার হুমকি পর্যন্ত দেন। তার অভিযোগ, লক ডাউনের সময় কোথায় যাব এই কথায় বাড়িওয়ালা জানায় বাড়ি না ছাড়লে জল এবং বিদ্যুতের লাইন কেটে দেওয়া হবে। শঙ্খ জানায় একাধিকবার আবেদন করার পরেও বাড়িওয়ালা রাজি না হওয়ায় শেষে বাধ্য হয়ে চলে আসার পর একটি ফ্ল্যাটে আশ্রয় নিই।

অন্যদিকে শম্পার অভিযোগ, আচমকা এই ধরনের বাধার মুখে পড়ে আমরা কয়েকটা বিছানা ও বাসনপত্র ছাড়া আর কিছু না আনতে পারায় প্রচুর সমস্যার মধ্যে আছি। দম্পতির অভিযোগ, তারা হাসপাতাল থেকে আসায় তাদের প্রতি এই আচরণ করেছে বাড়িওয়ালা।

অন্যদিকে বাড়িওয়ালা মমতা মান্না জানান, তার কিছু পারিবারিক সমস্যার কারণে তিনি দম্পতি ও তাদের সদ্যোজাতকে ঘরে ঢুকতে দেননি।

উলুবেড়িয়া পুরসভার চেয়ারম্যান অভয় দাস জানান, বিষয়টি আমি শোনার পর বাড়িওয়ালার সাথে কথা বলেছি। আমি ওই দম্পতিকে বাড়ি ফেরানোর চেষ্টা করছি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here