বক্সায় রেডিও কলার পরিয়ে ছাড়া হল চিতাবাঘ, সাহায্য করবে গবেষণাতে

আমাদের ভারত, আলিপুরদুয়ার, ৪ জুলাই: বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পে আরও একটি চিতাবাঘকে অত্যাধুনিক রেডিও কলার পরিয়ে ছাড়া হল জঙ্গলে। বনদফতরের থেকে জানা গেছে, শনিবার বাঘ বনের পূর্ব ডিভিশনের রায়ডাকের জঙ্গল এলাকায় দুদিন আগেই তুরতুরি চা-বাগান থেকে খাঁচাবন্দি বছর চার বয়সের একটি স্ত্রী চিতাবাঘটিকে সফলভাবে ছাড়া হয়। উল্লেখ্য, রেডিও কলার পরিয়ে পূর্বেও বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পে জঙ্গলের পশ্চিম ডিভিশনে একটি চিতাবাঘ ছাড়া হয়েছিল। পরবর্তীতে পূর্ব ডিভিশনেও আর একটি লেপার্ডকে কলার আইডি পরিয়ে ছাড়া হয়েছিল। তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে গলায় রেডিও কলার পরা অবস্থায় সেটির মৃত্যু হয়।

এদিকে, জলদাপাড়া ও বক্সা দুটি জাতীয় উদ্যান লাগোয়া জনবসতি বিশেষ করে চা-বাগান এলাকায় চিতাবাঘের উৎপাত চলে সারা বছর। জলদাপাড়ায় একইভাবে গতবছর একটি চিতাবাঘ ছাড়া হয়েছিল। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, মূলত চিতাবাঘের গতিবিধি, খাদ্যাভ্যাস, লোকালয় মুখী হবার প্রবণতা, শিকারের এলাকা সবকিছুর উপরই নজর থাকবে।

বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পের ফিল্ড ডিরেক্টর শুভঙ্কর সেনগুপ্ত জানান,”সফলভাবেই লেপার্ডটিকে রেডিও কলার পরিয়ে জঙ্গলে ছাড়া হয়েছে আজ। আমরা তার গতিবিধির উপর নজর রাখছি।

এদিকে, উত্তরবঙ্গে চা-বাগান ও জঙ্গল এলাকা মিলিয়ে মোট কতগুলি চিতাবাঘ রয়েছে তার গণনা হয়নি।বিভিন্ন ধারনা রয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞদের একাংশ জানান, চিতাবাঘের সংখ্যা উত্তরবঙ্গে বৃদ্ধি পেয়েছে সবকটি জঙ্গলে, এতে কোনও সন্দেহের অবকাশ নেই।পাশাপাশি এও পরিস্কার মাংসাশী প্রাণী হিসেবে প্রায় সর্বভুক চিতাবাঘ। মাছ থেকে হরিণ, শম্বর, গৃহপালিত গরু, কুকুর, শুয়োর, ভেরা, ছাগল এমনকি মানুষকেও খুবলে খেতে দেখা গিয়েছে আলিপুরদুয়ারে বেশ কয়েকবার। স্বাভাবিকভাবেই চিতাবাঘ নিয়ে গবেষণাও চলছে প্রাথমিকস্তরে। জানা গেছে, সেই গবেষণাকে সাহায্য করবে কলার পরা নজরবন্দি বাঘ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here