বাংলায় ৩১ জুলাই পর্যন্ত বাড়ছে লকডাউন, সর্বদলীয় বৈঠকের পর ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

রাজেন রায়, কলকাতা, ২৪ জুন: করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় বুধবার নবান্নে সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিন ঘন্টা সর্বদলীয় বৈঠকের শেষে বর্ধিত লকডাউনের ঘোষণাই করলেন মুখ্যমন্ত্রী।সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, রাজ্যে প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে ছাড় দিয়ে ৩১ জুলাই পর্যন্ত রাজ্যে লকডাউন বৃদ্ধি করা হচ্ছে। ওই সময়ে রাজ্যে লোকাল ট্রেন থেকে মেট্রোও বন্ধ থাকবে। এছাড়া আমফান ত্রাণ সমস্যা প্রশমন করতে একটি সর্বদলীয় কমিটিও তৈরি করা হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী জানান, বর্ধিত লকডাউনের সময় স্কুল, কলেজ বন্ধ থাকবে। তবে উচ্চ মাধ্যমিকের বাকি তিনটি পরীক্ষা নিয়ে পরে ঘোষণা করবেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। খুব শীঘ্রই লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি সংক্রান্ত সরকারি নির্দেশিকা জারি হবে। ৩১ জুলাই পর্যন্ত রাজ্যে সমস্ত স্কুল-কলেজ এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। তিনি জানান, লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি নিয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের তরফে বিভিন্ন মতামত জানানো হয়েছে। আরও ছাড়-সহ রাজ‍্যে লকডাউন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।

এছাড়াও আমফান ত্রাণ নিয়ে দুর্নীতি সামাল দিতে সর্বদলীয় বৈঠকে সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে আমফান পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের নিয়ে একটি কমিটি গঠনের কথাও এদিন সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই কমিটিতে থাকবেন তৃণমূলের তরফে পার্থ চট্টোপাধ্যায়, বিজেপির তরফে দিলীপ ঘোষ, সিপিএমের তরফে সুজন চক্রবর্তী-সহ বিভিন্ন দলের নেতারা। এই কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে পরবর্তী সময়ে নানা গুরুত্বপূ্র্ণ পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। এই নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমার কাছে ২,১০০টি অভিযোগ এসেছে। জেলাশাসক, বিডিওদের বলছি, আপনাদের এক সপ্তাহ সময় দিচ্ছি। সমস্ত বিষয়টি প্রশমনে ব্যবস্থা নিন। ক্ষতিপূরণ পাওয়া থেকে কেউ বঞ্চিত হলে আবেদন করুন। ত্রাণ নিয়ে দলবাজির কোনও জায়গা নেই।’

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here