তেলেঙ্গানায় বাড়ল লকডাউনের মেয়াদ, রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে জল্পনা!

চিন্ময় ভট্টাচার্য, আমাদের ভারত, ২০ এপ্রিল: নোবেল করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় দেশে় লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি হলেও সেটি ৩ মে পর্যন্ত ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু ওই সময় কালের মধ্যে কি আদৌ করোনা মুক্তি সম্ভব! তা নিয়ে সংশয় রয়ে গেছে। তাই সার্বিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে চন্দ্রশেখর রাওয়ের নেতৃত্বাধীন সরকার তেলেঙ্গানায় লকডাউনের মেয়াদ ফের বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল। ৩ মে থেকে বাড়িয়ে এই মেয়াদ তিনি ৭ মে পর্যন্ত করার কথা ঘোষণা করেছেন। দেশে দ্বিতীয় দফার লকডাউন ঘোষণার পর তেলেঙ্গানা়ই প্রথম রাজ্য, যেখানে ফের লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি করা হল।

সোমবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকের পরই লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। তিনি বলেন,’৭ মে পর্যন্ত লকডাউন বৃদ্ধি করা হল। তবে ৫ মে পর্যন্ত পরিস্থিতির দিকে কড়া নজর দেওয়া হবে।’ লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর পাশাপাশি সমস্ত ফুড ডেলিভারি অ্যাপের পরিষেবাও এবার পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়ার কথা তিনি ঘোষণা করেছেন। তেলেঙ্গানায় এখনও পর্যন্ত ৮৫৮ জন নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ২১ জনের।

তেলেঙ্গানার পথ অনুসরণ করে কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী বি এস ইয়েদুরাপ্পাও যে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর পথেই হাঁটবেন, তার ইঙ্গিতও ইতিমধ্যে পাওয়া গিয়েছে। রবিবারই কর্নাটকে একটি ভিডিও কনফারেন্সের ইয়েদুরাপ্পা তাঁর রাজ্যে লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধিতেই ইঙ্গিত দেন। এবার বাকি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরাও আলাদা আলাদাভাবে নিজেদের রাজ্যে লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি করবেন কিনা সেটাই দেখার! অনেকের মতে, গতবারের মত সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা ব্যক্তিগতভাবে নিজেদের রাজ্যে লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীকে দেশে লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির আর্জি ফের জানাতে পারেন। তবে সেটা হলেও কেন্দ্রীয় সরকার এবার সেই আর্জি শুনবে কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here