লুঙ্গিবাহিনী আবার উৎপাত করলে এমন দেওয়াই দেব, লুঙ্গি এখানে রেখে বাংলাদেশে পালাবে: দিলীপ ঘোষ

19

আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগনা, ২৩ ডিসেম্বর: এবার সিএএ বিরোধীদের কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, লুঙ্গিবাহিনী বেশি উৎপাত করলে এমন দাওয়াই দেব, যে তারা লুঙ্গি এখানে রেখে বাংলাদেশে পালাবে। এই প্রসঙ্গে তিনি সিপিএম এবং তৃণমূলের কড়া সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, দিদি কিছু চিৎকার করে কিচ্ছু করতে পারবেন না। তার চোখের সামনেই আমরা উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্ব দেব। গতকাল মধ্যমগ্রামে একথা বলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

মধ্যমগ্রামের জনসভায় গতকাল সন্ধ্যায় দিলীপ ঘোষ বলেন, এই সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে কোনও ভারতবাসীর সমস্যা নেই। যেমন আমি এখানে আছি তাই আমার কোনও চিন্তা নেই। কিন্তু যারা বাধ্য হয়ে এসেছেন এই আইন তাদের নাগরিকত্ব দেওয়ার জন্য। অতএব চিন্তা নেই। কিসের ভয়? ভয় একটাই, সেটা হল ভোটার চলে যাবে। আন্দোলনকারীদের প্রসঙ্গে তিনি বলেন সারা ভারতে একই লোক একই চেহারা একই কাপড়-চোপড় পরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে। কিন্তু ওরা ভুলে গেছে, দিদি পশ্চিমবঙ্গকে অর্ধেক বাংলাদেশে বানালেও বাকি ভারতবর্ষ পারেননি। সেখানে যোগী আছে, উৎপাত করলে গুলি দিয়ে হিসাব হবে। এখন গোনা হচ্ছে কটা পড়েছে।

উদ্বাস্তু প্রসঙ্গে সিপিএমের সমালোচনা করে বলেন, মরিচঝাঁপিতে এই উদ্বাস্তু মানুষদের ওপর গুলি চালিয়েছিল সিপিএম? তাঁর প্রশ্ন, কী অপরাধ করেছিল সেই মানুষগুলো? তারা একটু থাকতে চেয়েছিল। তাদের যাতায়াত বন্ধ করে দিয়েছিল, গুলি চালিয়েছিল, লাঠিপেটা করেছিল। কিন্তু তাতেও মন ভরেনি, তারপর তাদের তুলে এনে সমুদ্রে হাঙ্গরের মুখে ফেলে দিয়েছিল, সেসব ইতিহাস। আজ শোধ দিতে হচ্ছে সিপিএমকে। পঞ্চায়েতে হেরেছে, পার্লামেন্টেও মানুষ হারিয়ে দিয়েছে।
আজ সেই রিফিউজিদের দুর্ভাগ্য দূর করতে আইন পাস করানো হয়েছে। যখন বলেছি তখন করবই। দিদি বলেছেন করতে দেবেন না। তিনি মমতাকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, আপনি কিচ্ছু করতে পারবেন না। আপনি ডিমনিটাইজেশন বন্ধ করতে পারেননি, জিএসটি বন্ধ করতে পারেননি, তিন তালাক বন্ধ করতে পারেননি, ৩৭০ পারেননি। আপনার চেঁচানোই সার। আপনি কিচ্ছু করতে পারবেন না। এবার দেখবেন আপনার চোখের সামনে আমরা সিএএ কার্যকর করব। লাইন দিয়ে দাঁড় করিয়ে সমস্ত উদ্বাস্তুদের ফরম ফিলাপ করে তাদের নাগরিকত্ব দেব। অতএব চিন্তা করবেন না। আর লুঙ্গি বাহিনী যদি বেশি উৎপাত করে তাহলে এমন দাওয়াই দেবো যে লুঙ্গি এখানে রেখে বাংলাদেশে পালাবে। চিন্তার কোনও কারণ নেই। মোদি হ্যায় তো মুনকিন হ্যায়। মোদি বলেছেন, করেছেন। আমরা বলেছিলাম রাম মন্দির হবে, হয়েছে, ভগবান করেছেন, রামের ইচ্ছায় হয়েছে। এটা নিয়ে বেশি হইচই করতে পারেনি, লাঠি আছে না। আসলে আমরা কোর্ট মানি, সংবিধান মানি। এরা আইন মানে না, আদালত মানে না, শুধু পাকিস্তান মানে। সিপিএম সাফ হয়ে গেছে, এরাও সাফ হয়ে যাবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here