তথ্য ভিত্তিহীন! অসম্মান করা হয়েছে মা সারদার, জোরালো প্রতিবাদ জানালো রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন

আমাদের ভারত, ৩০ জুন: অসম্মান করা হয়েছে মা সারদার। জোরালো প্রতিবাদ জানালো রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন। মা সারদাদেবীকে নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক নির্মল মাজি যে মন্তব্য করেছেন তার বিরুদ্ধে সরব হলেন বেলুড় মঠের সাধারণ সম্পাদক স্বামী সুবীরানন্দ মহারাজ। তাঁর কথায় আমাদের সকলের, মায়ের এই অসম্মান দুঃসহ বলে মনে হচ্ছে।

সম্প্রতি একটি ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে নির্মল মাজিকে বলতে শোনা গেছে, সারদা মা মারা যাওয়ার কিছুদিন আগে স্বামী বিবেকানন্দের কিছু সতীর্থ মহারাজদের কাছে বলেছিলেন, আমিতো কালীঘাটের মন্দিরে হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটের খাল পেরিয়ে যাই। আমার মৃত্যুর পরে আমি কালীঘাটের কালী ক্ষেত্রে জন্ম নেব এবং মনুষ্য জন্ম নেব এবং আমি ত্যাগ, তিতিক্ষা ও সামাজিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সঙ্গে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডেও জড়িয়ে যাব। নির্মল মাজি দাবি করেন, সংখ্যাতত্ত্ব অনুযায়ী সারদা মায়ের মৃত্যুর পরে মমতা ব্যানার্জির জন্মের সময় সেই অংকটাই মিলিয়ে দেয়। এরপরই তিনি দাবি করেন, মমতাময়ী মা সারদার রূপের পুনর্জন্ম নিয়েছেন। (যদিও সেই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি আমাদের ভারত)।

বৃহস্পতিবার নির্মল মাজির সেই দাবি নিয়ে প্রতিবাদ জানায় রামকৃষ্ণ মিশন। নির্মল মাজির নাম না করলেও দ্ব্যর্থহীন ভাষায় স্বামী সুবীরানন্দ মহারাজ বলেন, যথেষ্ট উদ্বেগের সঙ্গে জানাচ্ছি সম্প্রতি কোনো এক রাজনৈতিক নেতা প্রকাশ্য বক্তৃতায় বলেছেন, শ্রী শ্রী মা সারদা দেবী নাকি দেহত্যাগের আগে রামকৃষ্ণ মিশনের মহারাজের কাছে বলে গেছেন তিনি এরপর মানবী রূপের দক্ষিণ কলকাতায় আবির্ভূত হবেন এবং তখন তিনি ত্যাগ-তিতিক্ষা ও সামাজিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডেও জড়িয়ে যাবেন। শ্রী শ্রী মা সারদা দেবী সম্পর্কে রামকৃষ্ণ মঠ ও রামকৃষ্ণ মিশন এবং অন্যান্য প্রকাশনা সংস্থা থেকেও কয়েকটি প্রামাণিক গ্রন্থ এযাবত প্রকাশিত হয়েছে তার কোনোটিতেই এই তথ্য নেই।

মহারাজ জানিয়েছেন, রামকৃষ্ণ মিশন ও মঠের সকল সন্ন্যাসী ও ব্রহ্মচারী অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে মনে করছেন, উপরোক্ত নেতা তার ওই বক্তব্যের দ্বারা আমাদের পরমারাধ্য শ্রী শ্রী মা সারদা দেবীর মর্যাদাহানি করেছেন। ক্ষোভের সঙ্গে মহারাজ বলেন, “আমাদের সকলের মায়ের এই অসম্মান আমাদের দুঃসহ বলে মনে হচ্ছে।”

এর প্রতিক্রিয়ায় তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ বলেন, মমতা ব্যানার্জিকে নির্মল মাজি শ্রদ্ধা করেন এটা খুব ভালো কথা। এটাও সত্যি মমতা ব্যানার্জির মধ্যে মানবিকতার বহু গুণ রয়েছে। তিনি বহু মানুষ এবং পরিবারকে নতুন আলো দেখিয়েছেন। কিন্তু নির্মল মাজি যে ধরনের উক্তি করে বসেছেন তা বিজ্ঞানসম্মত নয়।এটা এড়ানো গেলেই ভালো হতো। মমতা ব্যানার্জি মমতা ব্যানার্জি হিসেবেই সম্মানিত। নির্মল মাজি বাড়াবাড়ি করতে গিয়ে বিষয়টিকে অকারণে বিতর্কের মধ্যে ঠেলে দিয়েছেন।

সিপিএম নেতা কল্লোল মজুমদার বলেছেন, মনীষীদের সম্পর্কে এই ধরনের অসম্মান তৃণমূলের তরফে বারবারই হয়ে চলেছে। মানসিক অসুস্থতা না থাকলে এই ধরনের কথা বলা যায় না।

বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য বলেছেন, রামকৃষ্ণ মিশনের দুঃখ অপমানে এখুনি শেষ হয়ে যায়নি, আরো বাকি আছে। অদূর ভবিষ্যতে ওই অঞ্চলে বিবেকানন্দের সন্ধান পাওয়া যাবে। তিনি আরও বলেন, দক্ষিণেশ্বরের রাস্তায় গভীর রাতে কান পাতলেই শোনা যায় রামকৃষ্ণদেব ডুকরে ডুকরে কাঁদছেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here