করোনা তহবিলে ৫১ হাজার টাকা দিল মেদিনীপুর টাউন স্কুল বালক

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ১৫ এপ্রিল: করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে এলেন, শিক্ষক-শিক্ষিকা-
শিক্ষাকর্মীগণ। বিপন্ন সময়ে করোনা পরিস্থিতিতে সংকটকালে মানুষের পাশে দাঁড়াতে এবার এগিয়ে এল, দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের ঐতিহ্যে ঐতিহ্যমন্ডিত মেদিনীপুর শহরের শতাব্দী প্রাচীন হেরিটেজ বিদ্যালয় মেদিনীপুর টাউন স্কুল বালক। বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকা-শিক্ষাকর্মীদের তরফে সম্মিলিত ভাবে ৫১ হাজার টাকার অনুদান তুলে দেওয়া হল মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে।বুধবার রাষ্ট্রপতি পুরস্কারে ভূষিত ও রবীন্দ্র গবেষক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ড: বিবেকানন্দ চক্রবর্তীর নেতৃত্বে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একটি প্রতিনিধি দল পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা‌শাসকের কার্যালয়ে অতিরিক্ত জেলা শাসক প্রণব বিশ্বাসের হাতে ৫১ হাজার টাকার চেকটি তুলে দেন।

পরাধীন ভারতে দেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম আঁতুড়ঘর ছিল ১৮৮৩ সালে প্রতিষ্ঠিত অবিভক্ত মেদিনীপুর জেলার অন্যতম প্রাচীন এই স্কুল। এই বিদ্যালয়ের চারজন ছাত্র দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে আত্মাহুতি দিয়েছেন। বিপ্লবীদের অস্ত্রগুরু হেমচন্দ্র কানুনগো এই বিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ড: বিবেকানন্দ চক্রবর্তী বলেন, মারণ ভাইরাস করোনার আক্রমণে গোটা বিশ্ব, গোটা দেশ, গোটা পশ্চিমবঙ্গ আজ বিপন্ন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আন্তরিক ভাবে এই পরিস্থিতি মোকাবিলা করে চলেছেন। রাজ্যের একটা বড় অংশের মানুষের দৈনন্দিন জীবন ধারণ আজ সংকটের মুখে।এই কঠিন সময়ে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে যৎসামান্য অর্থ তুলে দিয়ে বিভিন্ন মানুষের পাশে কিছুটা দাঁড়ানোর চেষ্টা করলাম মাত্র। আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস সমাজের কাজে এলে খুশি হব। এদিন জেলা শাসকের দপ্তরে প্রধান শিক্ষকের সাথে উপস্থিত ছিলেন নিখিল কুমার পাত্র, তপন সাহা, সব্যসাচী দাস ও অনন্যা পাণ্ডে প্রমুখ শিক্ষক-শিক্ষিকাগণ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here