মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বহিরাগত লাগে না, বিজেপিকে পাল্টা তোপ ফিরহাদের

রাজেন রায়, কলকাতা, ২১ নভেম্বর : ‘বহিরাগত প্রয়োজন নেই তৃণমূলের। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিজস্ব যে শক্তি আছে, তাতে উনি দেশকে নেতৃত্ব দিতে পারেন। সুতরাং আমাদের কোনও বহিরাগত লাগে না।’ শনিবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি দিলীপ ঘোষের পাল্টা প্রতিক্রিয়া জানিয়ে এই ভাষাতেই তোপ দাগলেন পুর ও নগরোন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

এর আগে বিজেপি সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ বহিরাগত প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছিলেন। দিলীপের কথায় স্পষ্ট, তৃণমূল প্রশান্ত কিশোরের মত বহিরাগতকে দিয়ে দল চলাচ্ছে। এদিন তারই পাল্টা প্রতিক্রিয়া জানালেন ফিরহাদ।

তৃণমূল একক ক্ষমতায় বামেদের বাংলা থেকে হটিয়ে ছিল, সে কথা মনে করিয়ে ফিরহাদ আরও বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সিপিএমের বিরুদ্ধে লড়াই করে একটা দল তৈরি করে সিপিএমকে সরিয়েছে। ৩৪ বছরের জগদ্দল পাথর আমরা নিজেরা সরিয়েছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে আমরা বাংলাকে জয় করেছি এবং ধরে রাখবো।’

পাশাপাশি বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং শনিবার সকালে বলেছিলেন, শুভেন্দু সহ ৫ তৃণমূল সাংসদ খুব শীঘ্রই বিজেপিতে যোগ দেবেন। সে প্রসঙ্গে ফিরহাদ বলেন, ‘অর্জুন সিং যখন দল ছেড়ে চলে গেছে, যখন অন্য দলের ব্যাপারে কথা বলার কোন অধিকার নেই। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল। আমরা যারা তৃণমূল কংগ্রেস করি সে সৌগত রায় বা আমি হই বা অন্য কেউ কংগ্রেস নামটা রয়েছে গান্ধীজীর জন্য। অর্জুন সিং এটা উপলব্ধি করতে পারবে না। এ সম্পর্কে তাদের কোনো উপলব্ধি নেই। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, আমি, সৌগত রায় বা সুব্রত মুখোপাধ্যায় আমরা নীতিগতভাবে গান্ধীবাদ ও সুভাষবাদে বিশ্বাস করি। তাই তৃণমূল কংগ্রেস করি। গান্ধীবাদী বিশ্বাস করে আমি এই দল করছি। গান্ধী হত্যাকারীর দিকে আমরা যেতে পারি না। শুভেন্দু রাজনীতি করেছে ছাত্র পরিষদ থেকে, সেও গান্ধীবাদ সুভাষ বাদ জিন্দাবাদ বলতে বলতে বড় হয়েছে। সে নীতি অর্জুন ভুলতে পারে, কিন্তু আমরা হবো না। সৌগত দার কাছ থেকে আমি নিজে গান্ধীবাদ সুভাষ বাদ, ধর্ম নিরপেক্ষতার নীতি শিখেছি। তাই আমরা কেউ যেতে পারব না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here