মোদীকে চিঠি লিখে প্রটোকল মনে করিয়ে দিলেন মমতা, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলকে জেলায় ঘুরতে না দেওয়ার হুমকি মুখ্যসচিবের

আমাদের ভারত, ২০ এপ্রিল :
কেন্দ্রের আন্তঃমন্ত্রক দুটি প্রতিনিধিদল রাজ্যে এসেছে রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি তথা লক ডাউন সহ সামগ্রিক বিষয়ে সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে। কিন্তু এই প্রতিনিধিদলের রাজ্যে আসাকে মোটেই ভালোভাবে নেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতিনিধিদলের আসা নিয়ে আগেই প্রশ্ন তুলেছিলেন। এবার একেবারে মোদীকে চিঠিও লিখলেন মুখ্যমন্ত্রী। চিঠিতে লিখলেন কেন্দ্রীয় দল রাজ্যে আসছে সে কথা তাকে জানানোর আগেই কেন্দ্রের প্রতিনিধিরা কলকাতা বিমানবন্দরে নেমেছেন।

প্রতিনিধি দল আসা নিয়ে মোদীকে নিজের বিরক্তি স্পষ্ট করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। চিঠিতে লিখেছেন যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় যে সৌজন্যে জরুরী। তা তিনি কেন্দ্রের কাছে আশা করেন। মোদীকে চিঠি লিখে মমতা জানিয়েছেন রাজ্যে কেন্দ্রীয় দল আসার কথা সোমবার দুপুর একটায় অমিত শাহ তাঁকে ফোন করে জানান। আর সেই প্রতিনিধি সকাল দশটা দশেই বিমান বন্দরে নেমেছে। মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন এইভাবে আন্তঃ মন্ত্রক কেন্দ্রীয় দল পাঠানো প্রটোকলের বাইরে।

মুখ্যমন্ত্রীর কাছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর ফোন আসার আগে রাজ্যের মুখ্য সচিবের কাছে কেন্দ্রে চিঠি এসেছিল। তবে সে চিঠি এসেছে কেন্দ্রীয় দল আসার আধঘন্টা আগে। মোদীকে লেখা চিঠিতে সে কথা উল্লেখ করেছেন মমতা।

মূলত করোনা সংক্রমণ সংক্রান্ত পরিস্থিতি দেখতে কেন্দ্রীয় দল পশ্চিমবঙ্গে এসেছে এ কথা জানিয়ে চিঠি দিয়েছিল কেন্দ্র। ওই চিঠিতে নির্দেশে লেখা হয়েছে, অনেক জায়গায় লকডাউন মানা হচ্ছে না। রাজ্যের ৭টি জেলার করোনা পরিস্থিতি অত্যন্ত গুরুতর। তাই সরেজমিনে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে আসছে কেন্দ্রের দল।

কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মনে করিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের লোকডাউন অত্যন্ত কঠোরভাবে রূপায়ন করেছে। একইসঙ্গে কেন্দ্রের সঙ্গে নিরন্তর যোগাযোগ রেখে চলেছে। কেন্দ্রের আগেই লকডাউন ঘোষণা করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। অথচ কেন্দ্রের তরফে এই একতরফা পদক্ষেপ কাম্য নয় বলে লিখেছেন তিনি। একইসঙ্গে কেন্দ্রের পর্যবেক্ষণ তথ্যভিত্তিক নয় ফলে এই দাবির কোনো বিশ্বাসযোগ্যতা নেই বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

টুইটারে প্রধানমন্ত্রী মোদী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা’কে ট্যাগগ করে, এই প্রতিনিধিদল পাঠানোর সিদ্ধান্তের যৌক্তিকতা জানতে চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তার সুরে সুর মিলিয়ে রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা বলেন, উপযুক্ত কারণ না জানাতে পারলে কেন্দ্রী দলকে জেলায় ঘুরতে দেবে না রাজ্য।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here