ভ্যাকসিন নিয়ে স্বজন পোষণের অভিযোগ হাবড়ার মানিকনগর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে, ৩ দিন ধরে লাইনে দাঁড়িয়েও মিলল না ভ্যাকসিন

সুশান্ত ঘোষ, উত্তর ২৪ পরগনা, ৩০ আগস্ট: হাবড়া ২ নং ব্লকের মানিকনগর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে টিকার জন্য ৩ দিন ধরে লাইন। শনিবার থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে, দাবি ভ্যাকসিন গ্রহীতাদের একাংশের। সোমবারও ভ্যাকসিন পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ। কাল ভ্যাকসিন মিলবে বলে দাবি। প্রতিক্রিয়া মেলেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের।

শনিবার থেকে টানা লাইনে দাঁড়িয়ে। কিন্তু সোমবার হয়ে গেলেও মেলেনি ভ্যাকসিন। রাজ্যে ভ্যাকসিন সঙ্কটের চিত্রটা ফের একবার চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়া ২নং ব্লকের মানিকনগর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে সোমবারের এই ঘটনা। অভিযোগ, এখানে ভ্যাকসিন পেতে টানা তিন দিন বা ৭২ ঘণ্টা ধরে লাইনে দাঁড়িয়ে রয়েছেন গ্রাহকদের একাংশ। ভ্যাকসিন গ্রাহক নমিতা পাল, শম্ভু দাস বলেন, শনিবার থেকে লাইন দিচ্ছি। এখনও ভ্যাকসিন পেলাম না। গ্রাহকদের অভিযোগ, এই হাসপাতাল থেকে কোনওদিন ৭০ জন, কোনওদিন ১০০ জনকে ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। ফলে দীর্ঘ লাইনে যাঁরা পিছনের দিকে রয়েছেন, তাঁরা সুযোগই পাচ্ছেন না। আরেক ভ্যাকসিন গ্রাহকের কথায়, লাইনে এগিয়ে গেলে দেখছি, নতুন লোক ঢুকে যাচ্ছে। আবার পিছিয়ে পড়ছি।

৭০ বছরের এক বৃদ্ধা বলেন, গত তিন দিন ধরে লাইন দিচ্ছি অথচ যেখানে দাঁড়িয়ে ছিলাম আজও সেখানেই দাঁড়িয়ে আছি। আর যাঁরা পঞ্চায়েত সদস্যের পছন্দের বা কাছের মানুষ তাঁদের লাইনের কোনও বালাই নেই। নেই বয়সের কোনও বিধি নিষেধ। হাঁটুর বয়সের নাতি নাতনিরা ভ্যাকসিন নিয়ে বেড়িয়ে আসছে। অভিযোগ, টোকেনের মাধ্যমে পঞ্চায়েত সদস্যরা নিজেদের ইচ্ছামত মানুষকে ভ্যাকসিন পাইয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করছে। টোকেন বিলির ক্ষেত্রে কারা অগ্রাধিকার পাবে তা নিয়ে সরকারের নির্দেশও মানা হচ্ছে না। ফলে ৭০ ঊর্ধ্ব মানুষকেও দিনের পর দিন লাইনে দাঁড়িয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে। কিন্তু কেন এই পরিস্থিতি? এ বিষয়ে জানতে হাসপাতাল বা পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষকে ফোন করা হলেও কেউ ফোন ধরেননি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here