মনীশ শুক্লার খুনের ঘটনা কোনও সামান্য ঘটনা নয়, এতে পুলিশের বড় ভূমিকা রয়েছে, অভিযোগ বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতার

আমাদের ভারত, ব্যারাকপুর, ৫ অক্টোবর:
সোমবার দুপুরে বিজেপির এক কেন্দ্রীয় দল পৌঁছলেন টিটাগরে খুন হওয়া বিজেপি নেতা মনীশ শুক্লার বাড়িতে। প্রতিনিধি দলে ছিলেন, বিজেপির সর্ব ভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায়, কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয়, সাংসদ অর্জুন সিং, নোয়াপাড়া বিজেপি বিধায়ক সুনীল সিং সহ অন্যান্য বিজেপি নেতারা। মনীশ শুক্লার বাড়ি পৌঁছে তাঁর বাবা মার সাথে দেখা করেন।তাদের সহানুভূতির দেওয়ার পাশাপাশি এই খুনের উপযুক্ত তদন্তের আশ্বাস দেন বিজেপি কেন্দ্রীয় দলের সদস্যরা।

মণীশ শুক্লা পরিবারের সাথে দেখা করে সাংবাদিকদের মুখমুখি হয়ে কৈলাস বিজয়বর্গী অভিযোগ করেন, “ব্যারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের দুই আধিকারিকের কার্যকলাপ ও আচরণ এই খুনের মামলায় যথেষ্ট সন্দেহজনক। কারন এই খুনের ঘটনা কোনও সামান্য ঘটনা নয়, এতে পুলিশের বড় ভূমিকা রয়েছে। কারন মনীশ শুক্লাকে যে অস্ত্র দিয়ে খুন করা হয়েছে তা অত্যন্ত শক্তিশালী অস্ত্র, সেটা কারও কাছে সহজে আসতে পারে না। তাই আমরা চাই এই খুনের ঘটনার তদন্ত রাজ্য পুলিশ কে না দিয়ে সিবিআই এর তদন্ত করুক। আর এই ঘটনার উপযুক্ত জবাব সময় হলে সাধারন মানুষ মুখ্য মন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।”

কৈলাস বিজয়বর্গীর পুলিশের ওপর আনা এই অভিযোগের বিরোধিতা করে তৃণমূলের মুখ্য সচেতক নির্মল ঘোষ বলেন, “মণীশ হত্যায় মুখ্যমন্ত্রী ও পুলিশের নাম জড়িয়ে বিজেপির মন্তব্য হাস্যকর। পুলিশের বদনাম করছে বিজেপি। পুলিশের বিরুদ্ধে আনা এই অভিযোগ সর্বৈব মিথ্যা। বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দলে খুন হয়েছে মণীশ, পুলিশ তদন্ত করে এই ঘটনায় দ্রুত দোষীদের গ্রেপ্তার করবে। তৃণমূল হিংসার রাজনীতি করে না। বিজেপির ঘোরতর ষড়যন্ত্রে এই ঘটনা ঘটেছে।” তবে টিটাগরে র মণীশ শুক্লা হত্যা মামলায় ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে ব্যারাকপুর অঞ্চলে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here