মণীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় তৃণমূলের অনেক বড় মাথা জড়িত, দাবি দিলীপ ঘোষের

আমাদের ভারত, ব্যারাকপুর, ৮ অক্টোবর: মনীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় ফের সিবিআই তদন্তের দাবি জানালেন বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ। তাঁর অভিযোগ, এই খুনের সঙ্গে শাসক দলের অনেক বড় মাথা জড়িত। শুধু শাসকদলের নেতার নেতারাই নয়, তাঁর মতে এর সঙ্গে প্রশাসনের লোকজনও জড়িত আছে। তাই এই তদন্ত রাজ্যের পুলিশকে দিয়ে হবে না বলে মনে করেন তিনি। তাঁর দাবি সিবিআই-কে দিয়ে তদন্ত করানো হোক। আজ নিহত মনীশ শুক্লার বাড়িতে তাঁর বাবা-মায়ের সঙ্গে দেখা করার পর এ কথা বলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

রবিবার উত্তর ২৪ পরগনার টিটাগরে প্রকাশ্যে খুন হওয়া বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লার বাড়িতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পৌঁছলেন বিজিপির কেন্দ্রীয় নেতাদের একটি দল। এদিন বিজেপি সাংসদ তেজস্বী সূর্যের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় নেতা ও সাংসদ বিধায়কদের এক প্রতিনিধি দল মৃত মণীশ শুক্লার টিটাগরের বাড়ি যান ও সেখানে তাঁর মা ও বাবার সঙ্গে দেখা করেন ও তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন। এই কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলের মধ্যে ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, সাংসদ নিশিত প্রামাণিক, সংসদ অর্জুন সিং।

নিহত মণীশ শুক্লার বাড়িতে তাঁর বাবা মা এর সঙ্গে দেখা করে বেরিয়ে এসে সাংসদ নিশিত প্রামাণিক মণীশ শুক্লা খুনের মামলায় সিবিআই তদন্তের দাবি করে বলেন, “আমাদের রাজ্যের পুলিশ ও সি আই ডি এখন সরকারের তোতাপাখিতে পরিণত হয়েছে তাই আমরা কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছি। রাজ্য পুলিশ এখন দল দাসে পরিণত হয়েছে। মনীশ শুক্লাজি আমাদের যুব নেতা ছিলেন এবং অত্যন্ত জনপ্রিয় নেতা ছিলেন। ওনাকে সুপরিকল্পিত ভাবে চক্রান্ত করে খুন করা হয়েছে। ওনার মা ও বাবা আমাদের জানিয়েছেন যে আর যেন কারুর কোল এই ভাবে খালি না হয় তার জন্য ওনারা বিজেপির পাশে আছেন, ওনারা চান যেন বিজেপি এই রাজ্যে চলতে থাকা অরাজকতা থেকে বাংলার মানুষকে মুক্তি দিক।” মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা করে নিশিথবাবু বলেন, “এক সময় আমার মত অনেকেই এই তৃণমূল দলে ছিল। রাজ্য থেকে বাম শাসনের অবসান করার জন্য কিন্তু আমরা দেখেছি যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুধু টাকা চেনেন তাই আমরা অনেকেই এই দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দান করেছি। তৃণমূল দল এখন মানি ও মাফিয়াদের দল।”
অন্যদিকে, এদিন মণীশ শুক্লার বাড়িতে এসে দিলীপ ঘোষ বলেন, “মণীশ খুনের মামলায় আমরা অবশ্যই সিবিআই তদন্তের দাবি করছি। কারন এই খুনের ঘটনায় তৃণমূলের অনেক বড় মাথা জড়িত। শুধু তাই না এই ঘটনায় সরকারি লোক ও প্রশাসনের লোকও জড়িত আছে। তাই এই ঘটনাকে চাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হবে, তাই আমরা সিবিআই তদন্ত চাই।” আগামী মঙ্গলবার টিটাগর ও ব্যারাকপুরে তৃণমূলের পক্ষ থেকে শান্তি মিছিলের ডাক দেওয়া হয়েছে সেই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, “নিজেরাই খুন করবে এলাকা অশান্ত করবে আবার নিজেরাই শান্তি মিছিল করবে বলছে, তৃণমূল কংগ্রেস পুরো নাটক করছে, আমাদের অনেক কর্মী, নেতা এমন কি বিধায়ক, কাউন্সিলরদের খুন করেছে তারপর আবার শান্তি মিছিল করে নাটক করবে। সাধারন মানুষ এইসব বুঝে গেছে আগামী দিনে এর জবাব ওরা পাবে।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here