ধ্বংসস্তুপ থেকে ভেসে আসছে কান্না, গোটা এলাকা জুড়ে শুধুই হাহাকার বড়জোড়ায়

আমাদের ভারত, বাঁকুড়া, ৯ এপ্রিল: বুধবার দুপুরেও সার দিয়ে দাঁড়িয়েছিল শতাধিক দোকান। তবে লক ডাউনে বেশিরভাগ দোকান বন্ধ থাকলেও নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দোকানগুলিতে থাকত ক্রেতাদের ভিড়। আজ সেই বাজারে শুধু শ্মশানের নিস্তব্ধতা। বাঁকুড়ার বড়জোড়ার বিজয়া ময়দান বাজারে কান পাতলে এখন শুধু কান্নার রোল।

বাঁকুড়ার বড়জোড়া ব্লকের সবথেকে বড় বাজার বিজয়া ময়দান বাজার। এই বাজারের অধিকাংশ দোকানই অস্থায়ী। বাজারে সবজি ও কৃষিজাত পণ্যের বাজারের পাশাপাশি গায়ে গায়ে লাগানো অবস্থায় ছিল অসংখ্য কাপড়, বই পত্র, কৃষিজ সরঞ্জামের দোকান। বুধবার বিকালে হঠাৎই এই বাজারে ভয়াবহ আগুন লাগে। আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় ওই বাজারের সাড়ে তিনশোরও বেশি দোকান। চোখের সামনে আগুনের গ্রাসে একের পর এক দোকান পুড়তে দেখেও নিরুপায় হয়ে শুধু চোখের জল ফেলেছেন ব্যবসায়ীরা। পরে দমকলের দুটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন নেভাতে নেভাতে নেমে আসে সন্ধ্যের অন্ধকার। শুরু হয় ঝড় বৃষ্টি। আজ সকাল থেকেই ধ্বংসস্তুপে হাজির হয়েছেন সব হারানো ব্যবসায়ীরা। ধ্বংসস্তুপ হাতড়ে সকাল থেকে অতি কষ্টে খুঁজে বেড়াচ্ছেন অবশিষ্টাংশ।

গতকালও বড়জোড়ার যে বিজয়া ময়দানের নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর বাজার ছিল প্রাণচঞ্চল আজ সেই বাজারে শুধুই হাহাকার আর সব হারানো ব্যবসায়ীদের কান্নার শব্দ। ব্যবসায়ীদের আর্তি একটু হলেও ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের পাশে দাঁড়াক সরকার। ক্ষতিপূরনের জন্য বাম-ডান সর্বস্তর থেকেই সরকারের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here