মাস্ক পরেই সাতপাকে বাঁধা পড়ল নব দম্পতি

সুশান্ত ঘোষ, উত্তর ২৪ পরগণা, ৫ মে: মুখে মাস্ক পরে সামাজিক দূরত্ব মেনেই সাতপাকে বাঁধা পড়ল নবদম্পতি। মঙ্গলবার রাতে উত্তর ২৪ পরগনার বাগদা থানার হেলেঞ্চা মন্ডব ঘাটার গৌরাঙ্গ মন্ডলের মেয়ের বিয়ে হয়। ৬ মাস আগে বিয়ের দিন ঠিক হয়েছিল। কিন্তু লকডাউনের কারণে এক মাস পিছিয়ে বিয়ে হয়। নবদম্পতিদের নাম সুপর্ণা মণ্ডল ও সুরজিত বালা। এপ্রিল মাসে সুপর্ণার বিয়ের তারিখ ঠিক ছিল।লকডাউনের কারণে বিয়ের দিন এক মাস পিছিয়ে দেয় পরিবার। পরে বিয়ের দিন ঠিক হয় ৪ মে।

স্থানীয় সূত্রের খবর, বাগদা থানার হেলেঞ্চা মন্ডব ঘাটার গৌরাঙ্গ মন্ডলের মেয়ের সঙ্গে নদিয়ার হাঁসখালি থানার রুপদা গ্রামের প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক সুরজিৎ বালার অনেক দিন আগেই বিয়ের দিন ঠিক হয়। সুপর্ণার বাবা গৌরাঙ্গ মন্ডল রাজমিস্ত্রির কাজ করেন তেলেঙ্গানাতে। লকডাউনের কারণে তিনিও আটকে আছেন এখানে। তাই মেয়ের বিয়ে দেখেই লকডাউন উঠলেই তিনি ফিরে যাবেন তেলেঙ্গানাতে। এই কারণে মেয়ের বিয়ের জন্য তড়িঘড়ি। কথা মতো সোমবার রাতে দুইজন বরযাত্রী নিয়ে, ৩০ কিলো মিটার মটর বাইক চালিয়ে বিয়ের আসরে হাজির হয় জামাই। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলে মন্ত্রপাঠ। বিয়ের মন্ডপের পাশে নেই কেউ। পরিবারের দুই একজন ও পুরোহিতের মন্ত্রে সম্পূর্ণ হল বিয়ে। বিয়ে সম্পন্ন হতেই বউ নিয়ে বাইকে করে রওনা দিল জামাই সুরজিৎ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here