ঝাড়গ্রামে একাধিক দাবিতে বনাধিকার মোর্চার স্মারকলিপি

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, ঝাড়গ্রাম, ২৭ জুন:
সোমবার বিভিন্ন দাবি-দাওয়ার ভিত্তিতে ঝাড়গ্ৰাম জেলা বনাধিকার গ্ৰামসভা মোর্চার পক্ষ থেকে জেলাশাসককে একটি স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে। নয়াগ্ৰাম ও বিনপুর -২ ব্লকের বনাধিকার আইন-২০০৬ অনুযায়ী গঠিত গ্ৰামসভাগুলির এবং বনাধিকার কমিটির সভাপতি ও সম্পাদকরা জেলার ১০ টি গ্ৰাম সভার পৃথক পৃথক দাবি পত্রে জঙ্গল কেন্দ্রিক জীবিকার উন্নয়নের জন্য প্রস্তাব তুলে দেন।

তাদের প্রধান দাবিগুলি ছিল- 
১.বনাধিকার আইন-২০০৬ অনুযায়ী গঠিত গ্ৰাম সভার স্বীকৃতি দেওয়া।
২.গ্ৰাম সভার পেশকরা দাবি ক,খ,গ অনুযায়ী পাট্টার বন্দোবস্ত করা।
৩. গ্ৰামসভার দাবি ও প্রস্তাব গুলো গ্ৰাম সভার সদস্যদের সাথে আলোচনার মাধ্যমে পূরণ করা।
৪. সরকারি অধিকারিক থেকে সাধারণ গ্ৰামবাসীদের মধ্যে বনাধিকার আইন-২০০৬ নিয়ে সচেতনতা মূলক প্রচার করার পাশাপাশি বনাধিকার বিষয়ে জেলা ও মহকুমাস্তরের কমিটিতে কি আলোচনা হয় তা গ্ৰাম সভাগুলোকে জানানো। এবং
৫. বন জঙ্গল রক্ষা করে আদিবাসীদের জীবিকার স্থায়ী ব্যবস্থা করা।
 
ডেপুটেশনে প্রতিনিধিত্ব করেন বনাধিকার গ্ৰাম সভা মোর্চার যুগ্ম আহ্বায়ক চৈতন বেসরা ও মন্টু মুর্মু। জেলা শাসকের কাছে পুরো বিষয়টি উপস্থাপন করেন বনাধিকার কর্মী ঝর্ণা আচার্য। প্রতিনিধি দলে ছিলেন নয়াগ্রামের সুপাই মুর্মু, ঝাড়েশ্বর মান্ডী, ঝাড়েশ্বর প্রামানিক, মুলুকচাঁদ সরেন, চরণ মাহাত, বাপি সরেন, গোপাল দন্ডপাট এবং বিনপুর-২ ব্লকের সুরেন্দ্র হাঁসদা, সুধাময় মুর্মু ও যতীন্দ্রনাথ মাহাত।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here