“কোয়ারেন্টাইনে শ্রমিকদের বিক্ষোভের মূলে বিরোধীরা”

আশিস মণ্ডল, রামপুরহাট, ৯ জুন: কোয়ারান্টাইন সেন্টারে শ্রমিকদের উস্কানি দিয়ে বিক্ষোভ করাচ্ছে বিজেপি। মঙ্গলবার বীরভূমের তারাপীঠে সাংবাদিক সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন বীরভূম জেলা পরিষদের শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ আবু জাহের রানা। যদিও সাংসদ শতাব্দী রায় দাবি করেছিলেন শ্রমিকদের বিক্ষোভ তাদের নিজস্ব। সাংসদেরে এই বক্তব্যকে সমর্থন করেননি রানা।
মঙ্গলবার তারাপীঠের একটি বেসরকারি লজে সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে তৃণমূল। সেখানে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের হাঁসন কেন্দ্রের কো-অর্ডিনেটর ত্রিদিব ভট্টাচার্য, দলের রামপুরহাট ২ নম্বর ব্লক সভাপতি সুকুমার মুখোপাধ্যায়, যুব সভাপতি প্রেমানন্দ মণ্ডল, বীরভূম জেলা পরিষদের শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ আবু জাহের রানা।

সম্মেলনে বিজেপির সমালোচনা করে সুকুমারবাবু বলেন, “চার দফায় ব্লকে ২০ হাজার মানুষকে ত্রাণ দেওয়া হয়েছে। বিজেপি মানুষের পাশে না থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে রাজনীতি করছে। আমাদের মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন রাজ্যে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা শ্রমিকদের থানায় নাম নথিভুক্ত করার পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু ব্যাঙ্গালোর থানা নাম নথিভুক্ত করতে যাওয়া শ্রমিকদের বলেছিলেন সরকার তোমাদের রাজ্যে ফেরানোর বিষয়ে কোনও উদ্যোগ নিচ্ছে না। এভাবেই বিজেপি নোংরা রাজনীতি করে চলেছে”।

রানা বলেন, “নলহাটি ২ নম্বর ব্লকে ২২টি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খোলা হয়েছিল। সরকারের পাশাপাশি আমরা দলগতভাবে তাদের পাশে থেকে খাবার দিয়েছিলাম। বাচ্চাদের জন্য দুধও দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বিজেপি বাড়িতে বসে শ্রমিকদের উস্কানি দিয়ে বিক্ষোভের সৃষ্টি করেছিল”। যদিও দিন দুয়েক আগে শতাব্দী রায় বলেছিলেন, “শ্রমিকদের বিক্ষোভে বিরোধীদের কোন উস্কানি নেই। তারা বাড়ি ফেরার জন্য বিক্ষোভ করছে”। সাংসদের এই মন্তব্যকে সমর্থন করেননি রানা। তিনি বলেন, “সাংসদ কি বলেছেন জানি না। তিনি যা বলেছেন তা ওনার ব্যক্তিগত বিষয়”।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here