বেঙ্গল এ্যামেচার সুইমিং অ্যাসোসিয়েশন পরিচালিত সাঁতার প্রতিযোগিতায় পাঁচটি সোনা জিতে নজির হাটখোলার মিহিকা চৌধুরীর

আমাদের ভারত, ৯ জুন: বেঙ্গল এ্যামেচার সুইমিং অ্যাসোসিয়েশন পরিচালিত তিন দিনের সাব-জুনিয়র ও জুনিয়র ডিস্ট্রিক্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ২০২২ সাঁতার প্রতিযোগিতায় হাটখোলা ক্লাবের এক কৃতী ছাত্রী মিহিকা চৌধুরী পাঁচ পাঁচটি সোনা জিতে এক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। বৃহস্পতিবার ক্লাবের এক মুখপাত্র এ খবর জানান। এক সময়ে এই ক্লাবে প্রশিক্ষণ নিতেন অলিম্পিয়াড বাংলার সাঁতারু শচীন নাগ ও ইংলিশ চ্যানেল জয়ী প্রথম মহিলা, পদ্মশ্রী আরতি সাহা।

ক্লাবের তরফে দেবাশিস সুর বৃহস্পতিবার জানান, মিহিকা চৌধুরী ব্যক্তিগত ভাবে ১৫০০, ৮০০, ৪০০, ২০০ মিটার ফ্রি-স্টাইলে প্রথম এবং ২০০ মিটার বাটার-ফ্লাই-এ প্রথম স্থান দখল করেছে। এ এক অনন্য নজির সৃষ্টি করে আগামী ভবিষ্যতের আর এক উজ্জ্বল প্রতিভাবান সাঁতারুর পথ প্রসস্থ করেছে।

আগামীতে ভুবনেশ্বরে অনুষ্ঠিত হতে চলা জাতীয় সাঁতার প্রতিযোগীতায় অংশগ্ৰহণের যোগ্যতা অর্জন করেছে মিহিকা। এই সাফল্যের মূল কান্ডারী ক্লাব কোচ সোমনাথ গায়েন। ক্লাবের পুরনো গৌরব কিছুটা ফিরে পাওয়ায় সদস্যরা খুব খুশী।

এদিকে, শ্যামবাজারে দেশবন্ধু পার্কে অবস্থিত সাঁতারের শতাব্দী প্রাচীন হাটখোলা ক্লাবের গঙ্গাপুজো শুরু হলো বুধবার। ক্লাবের প্রাঙ্গনে কথা হলো সাঁতার প্রশিক্ষক জ্যোতি-দা, সংগঠক ও প্রশিক্ষণার্থীর সঙ্গে। উনারা শোনালেন সাঁতার প্রশিক্ষণের নানা কথা। বর্তমানে সে-রকম আন্তর্জাতিক মানের আধুনিক সুযোগ সুবিধে নেই, নেই উন্নতমানের সাঁতার সরঞ্জাম। আছে শুধু সাঁতারু ও ক্লাব কর্মকর্তাদের মধ্যে মনোবল, সামনে এগিয়ে চলার দৃষ্টান্ত ও অনুপ্রেরণা। এই অটুট মনোবল নিয়ে এগিয়ে চলেছে শতাব্দী প্রাচীন হাটখোলা ক্লাব।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here