কেন্দ্রের ‘গরিব কল্যাণ রোজগার অভিযান’ ও পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে বিজেপিকে তোপ মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতোর

সাথী প্রামানিক, পুরুলিয়া, ২৭ জুন: কেন্দ্রীয় সরকারের ‘গরিব কল্যাণ রোজগার অভিযান ‘এ রাজ্যকে বঞ্চনা ও পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে বিজেপিকে তোপ দাগলেন পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন বিষয়ক দফতরের মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো। শনিবার একটি সাংবাদিক সম্মেলনে এই দুটি বিষয় ছাড়াও পিএম কেয়ারস ফান্ড ও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হন তিনি।

তিনি জানান, কেন্দ্রীয় সরকারের উল্লেখ করা মানদন্ড থাকা সত্ত্বেও ‘গরিব কল্যাণ রোজগার অভিযান ‘ থেকে বঞ্চিত পশ্চিমবঙ্গ। দেশের ৬টি রাজ্য বিহার, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, ওড়িশা,  ঝাড়খন্ড এবং রাজস্থানের ১১১টি জেলার এই প্রকল্পের জন্য নাম নথিভুক্ত হয়েছে। বাদ রয়েছে পশ্চিম বঙ্গ। কোভিড-১৯ মহামারির দরুন মোট ১৩.৮৪  লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিক পশ্চিমবঙ্গে ফিরে এসেছেন। পশ্চিমবঙ্গের ২৩টি জেলার মধ্যে ২০টিতে ২৫ হাজারের বেশি শ্রমিকের প্রত্যাবর্তন মানদণ্ডের আওতায় পড়ে।  মূলত এই  প্রকল্প পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্যই করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার এই প্রকল্পের জন্য ৫০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। কেন্দ্রের দেওয়া মানদণ্ড অনুযায়ী জেলায় কমপক্ষে ২৫ হাজার পরিযায়ী শ্রমিক থাকতে হবে।

পুরুলিয়া জেলা প্রশাসনের হিসেবে  ৫৮ হাজার ২৪৫ জন পরিযায়ী শ্রমিক বাড়ি ফিরেছেন। তবু কেন্দ্রের ওই তালিকায় পুরুলিয়া জেলা কেন জায়গা পেল না সেই নিয়ে সরব আগেই হয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দা তথা বিধায়ক নেপাল মাহাতো। কেন্দ্রের এই ভূমিকায় ক্ষিপ্ত তিনিও। প্রধানমন্ত্রীকে সরাসরি ট্যুইট করে এর প্রতিবাদ জানান নেপালবাবু। একইসঙ্গে অবিলম্বে জেলার নাম নথিভুক্ত করে কার্যকর করার দাবি জানান তিনি। অবিলম্বে পুনর্বিবেচনা না করলে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে উচ্চতর আদালতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দেন এই কংগ্রেস নেতা।

শুধু পুরুলিয়া নয়, কেন্দ্রের এই তালিকায় রাজ্যেরও থাকা উচিত বলে মনে করেন পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী শান্তিরাম মাহাতো। শনিবার, একটি সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে বলেন, গরিব কল্যাণ রোজগার অভিযান বাংলার মানুষকে অবমাননা করে কেন্দ্র পরিকল্পিতভাবে পশ্চিমবঙ্গকে দূরে রেখেছে। তিনি মনে করেন, বিজেপি সরকার নির্বাচনে জয়লাভ করতে আগ্রহী, পশ্চিমবঙ্গের পরিযায়ী শ্রমিকদের ভোগান্তি দূর করতে নয়। 

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here