৪৯৭ নম্বর পেয়ে উচ্চমাধ্যমিকে তৃতীয় স্থান অধিকার করল উত্তর দিনাজপুরের ছাত্রী মীরা দেবশর্মা

স্বরূপ দত্ত, আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ১৭ জুলাই:করোনা আবহে উচ্চমাধ্যমিকের মেধাতালিকা রাজ্য সরকার প্রকাশ না করলেও ৪৯৭ নম্বর পেয়ে রাজ্যে সম্ভাব্য মেধাতালিকায় তৃতীয় স্থান অধিকার করল উত্তর দিনাজপুর জেলার তরঙ্গপুর নন্দ কুমার উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী মীরা দেবশর্মা। বরাবরই মেধাবী ছাত্রী হিসাবে খ্যাত মিরা দেবশর্মার অভাবনীয় সাফল্যে খুশী তার পরিবার ও কালিয়াগঞ্জ নন্দ কুমার উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা। ভবিষ্যতে পড়াশোনা করে একজন শিক্ষিকা হয়ে সাধারণ মানুষের সেবা করাই লক্ষ্য উচ্চমাধ্যমিকে রাজ্যে সম্ভাব্য তৃতীয় মীরা দেবশর্মা।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশজুড়ে চলা লকডাউনে বন্ধ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। উচ্চমাধ্যমিকের একটি পরীক্ষা চলাকালীনই করোনার কারণে বন্ধ হয়ে যায় সমস্ত স্কুল কলেজ। ফলে স্থগিত হয়ে যায় একটি বিষয়ের পরীক্ষাও। এমতাবস্থায় একটি বিষয়ে সর্বোচ্চ গড় নম্বর ধরে উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্ট প্রকাশ করে রাজ্যের উচ্চ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। এবারে মেধাতালিকা প্রকাশ না করেই শুক্রবার উচ্চমাধ্যমিকের অনলাইনে ফলাফল ঘোষণা করে পর্ষদ। ৫০০ নম্বরের পরীক্ষায় রাজ্যে সর্বোচ্চ নম্বর হয় ৪৯৯। কালিয়াগঞ্জ তরঙ্গপুর এলাকার বাসিন্দা প্রায়াত চিত্র দেবশর্মা সেরিকালচার অফিসে চাকরি করতেন। মা কল্যাণী দেবশর্মা অঙ্গনওয়ারীর কর্মী। মীরা দেবশর্মা তরঙ্গপুর নন্দকুমার উচ্চ বিদ্যালয়ের কলা বিভাগের ছাত্রী পেয়েছে ৪৯৭ নম্বর। বাংলায় ১০০ ও ইংরেজিতে ৯৪, দর্শনে ৯৭, এডুকেশনে ১০০ ইংরেজিতে ৯৪ নম্বর পেয়েছে। মেধাতালিকা প্রকাশ না হওয়ায় একটু খারাপ লাগলেও তার এই ফলাফলে খুশী সে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here