গ্রিন জোনে থাকা পুরুলিয়ায় বাস চলাচলের সিদ্ধান্তকে ‘আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত’ বলে মন্তব্য বিধায়ক নেপাল মাহাতোর  

সাথী প্রামানিক, পুরুলিয়া, ৩০ এপ্রিল: গ্রিন জোনে থাকা পুরুলিয়া জেলায় দোকানপাট খোলা এবং বাস চলাচলের সিদ্ধান্তকে তীব্র প্রতিবাদ করলেন কংগ্রেস বিধায়ক নেপাল মাহাতো। বৃহষ্পতিবার তিনি বলেন, ‘এটা আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত বলে আমি মনে করি।’ তার কারণ হিসেবে প্রদেশ কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি নেপাল মাহাতো দাবি করে জানান, ভৌগলিকভাবে পুরুলিয়ার তিন দিক ঝাড়খন্ড সীমান্ত এলাকা রয়েছে। ধানবাদ, বোকারো, রাঁচী এগুলো রেড জোন। সেইসব জেলার সংলগ্ন এক কিলোমিটারের মধ্যেই কোভিড আক্রান্ত এলাকা রয়েছে। দোকান পাট খুলে দিলে এবং জেলার মধ্যে হলেও বাস চলাচল করলে ঝাড়খণ্ডের ওই সব এলাকা থেকে অবাধে এই জেলার বিভিন্ন প্রান্তে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়বে। কারণ পুলিশের পক্ষে জঙ্গল বা অন্যান্য রাস্তায় নজর রাখা সম্ভব নয়। এটা আটকানো সম্ভব হবে না। ফলে বিপজ্জনক পরিস্থিতিতে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

এদিন তিনি সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করে অবিলম্বে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার আবেদন জানান। একই সঙ্গে তিনি দাবি করে বলেন, ‘পুরুলিয়া জেলায় সম্পূর্ণ লকডাউন বলবত্‍ রাখা হয় এবং বাস চালানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হয়। কারণ এই জেলার চারিদিকে রেড জোন রয়েছে। তাই, সতর্ক থাকার পাশাপাশি লকডাউন শিথিল করলে পুরুলিয়াবাসীর ক্ষেত্রে ভয়ংকর ফল হতে পারে। তা ছাড়া বিশাল সংখ্যক মানুষের চিকিৎসা করার মতো উপযুক্ত পরিকাঠামোও নেই।

পুরুলিয়ায় লকডাউন আরও কঠোর হওয়ার দাবি করেন প্রদেশ কংগ্রেসের সম্পাদক পার্থ প্রতীম ব্যানার্জি। গ্রিন জোনে থাকা পুরুলিয়া জেলায় শিথিল করার প্রস্তাবের প্রতিবাদ করে সোচ্চার হন তিনি। তিনি বলেন, ‘প্রশাসনের সব কিছু ভেবে রাজ্যে রিপোর্ট পাঠানো উচিত্‍। তবে, বাস চলাচল করলে কংগ্রেস রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করবে।’   

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here