লকডাউনে ৬৫০টি পরিবারের খাবারের দায়িত্ব নিলেন বনগাঁ উত্তরের বিধায়ক

সুশান্ত ঘোষ, আমাদের ভারত, বনগাঁ, ১৯ এপ্রিল: লকডাউনে দীর্ঘ দিন ধরে ঘর বন্দি গ্রামের মানুষ। পেটে খিদের জ্বালা, বাইরে বেরলে পুলিশের তাড়া। আর এই করুণ অবস্থার দিকে তাকিয়ে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর উত্তরের বিধায়ক বিশ্বজিত দাস ৬৫০টি পরিবারের খাবারের দায়িত্ব নিলেন। রবিবার সকাল থেকে বনগাঁর অম্বিকাপুর ও মাছডোব এলাকায় খিচুড়ি, বেগুন ভাজা ও তরকারি রান্না করে নিজেই পরিবেশন করেন।

স্থানীয় সূত্রের খবর, এই এলাকায় আদিবাসী, পারুইদের বাস। কৃষিকাজ ও দিনমজুরি করে তারা জীবনজাপন করে। লকডাউনের পর রেশনের দু’কেজি চাল ও দু’কেজি গম ছাড়া কিছুই মেলেনি। এক প্রকার অনাহারেই দিন কাটাচ্ছিল। এদিন খবর পেয়ে বিধায়ক বিশ্বজিত দাস এলাকা পরিদর্শন করে ও মাস্ক বিলি করে সকলকে সচেতন করতে যান। তিনি নিজেই গ্রামে ঘুরে হতবাক। ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়েই তিনি খাবারের ব্যবস্থা করেন। সকাল থেকে দুটি গ্রামের মানুষ পাতপেড়ে খায়।

বিশ্বজিত বাবু বলেন, আগামী কাল থেকে ভাত, ডাল, সবজি রান্না করে খাওয়ানো হবে। যতদিন লকডাউন চলবে ততদিন আমাদের এই কর্মসূচি চলবে।

অন্য দিকে ভারতীয় জনতা পার্টির পক্ষ থেকে বনগাঁ ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মতিগঞ্জ নিচুপাড়ায় বনগাঁর বিজেপি কাউন্সিলর মধুসূদন মন্ডল এবং সকল কার্যকর্তাদের উপস্থিতিতে কর্মহীন মানুষদের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

বিজেপির জেলা সহ সভাপতি দেবদাস মন্ডল বলেন, ভারতীয় জনতা পার্টি কোনও দল রং না দেখে ওয়ার্ডের সমস্ত মানুষকে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিচ্ছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here