আজ রামজন্মভূমি মুক্ত হল, শতাব্দীর অপেক্ষা শেষ হল: মোদী

শ্রীরূপা চক্রবর্তী, আমাদের ভারত, ৫ আগস্ট: দীর্ঘ অতি দীর্ঘ সংগ্রাম, তপস্যা, ত্যাগ বলিদানের পর আজ রামজন্মভূমি মুক্ত হল। রামমন্দির নির্মানের ভুমিপুজোর অনুষ্ঠানে গিয়ে এমনটাই বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর কথায়, এক স্বর্ণযুগের সূচনা হলো আজ। রামের জয়ধ্বনি আজ সারা বিশ্বে শোনা যাচ্ছে। শুধু দেশবাসী নয় সারা বিশ্বের ভারতবাসী আজ সেই আওয়াজ শুনতে পাচ্ছে। আজ এক ঐতিহাসিক অধ্যায়ের সূচনা হল। শতাব্দীর অপেক্ষা আজ শেষ হল।

মোদী বলেন, আজ গোটা ভারতবাসী ভাবুক হয়ে উঠেছে। রামমন্দির নির্মানের জন্য যারা সংগ্রাম করেছেন তাঁরা হয়ত আজকের এই দিনটাকে বিশ্বাস করে উঠতে পারছেন না।
মোদী বলেন, সরযূ নদীর তীরে এক স্বর্ণযুগের সূচনা হল আজ। ভারতবাসী আজ রোমাঞ্চিত। রাম জন্মভূমি আজ মুক্ত হল। বহু দিনের প্রতীক্ষার আজ সমাপ্তি হল। ১৫ই আগস্ট যেমন ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রতীক, ঠিক তেমনি আজকের দিনটা রামমন্দির নির্মানের জন্য যে সংঘর্ষ, ত্যাগ, বলিদান ও সংকল্প হয়েছিল তার প্রতীক।

মোদী বলেন, আজকের এই স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে যাদের জন্য তাদেরকে ১৩০ কোটি দেশের হয়ে তিনি প্রণাম জানাচ্ছেন। তিনি বলেন, অনেক চেষ্টা হয়েছে রামের অস্তিত্ব মোছার। কিন্তু তা সফল হয়নি। কারণ আমাদের মনের ভেতরে আছে শ্রীরাম। ভারতের মর্যাদা রাম, তিনি মর্যাদা পুরুষোত্তম রাম”‌। আজ সেই রামচন্দ্রের জন্মভূমি মুক্ত হলো।

তিনি বলেন, ত্রেতা মুখের মত কলি যুগেও রামের মহিমা রক্ষা করবেন হনুমানজি। তাই রামমন্দির নির্মানের আগে আমি হনুমানগড়ির দর্শন করেছি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের রাষ্ট্রীয় ভাবনায় প্রতীক হবে এই রামমন্দির। ভগবান রামের জন্মভূমিতে নির্মিত এই রামমন্দির আমাদের সাংস্কৃতিক আধুনিক প্রতীক হবে, আমাদের শাশ্বত আস্থার প্রতীক হবে, কোটি কোটি মানুষের সাময়িক সংকল্পের প্রতীক হয়ে থাকবে এবং আগামী প্রজন্মকে আস্থা সংকল্পের প্রেরণা দেবে।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, এই মন্দির নির্মাণের ফলে অযোধ্যা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার অর্থ সামাজিক পরিস্থিতিতে বিরাট পরিবর্তন হবে। সারাবিশ্ব থেকে মানুষ আসবেন এখানে রাম–জানকীর দর্শণে।

মোদী বলেন, রাম মন্দির তৈরি করার প্রক্রিয়া আসলে রাষ্ট্রকে এক করার প্রক্রিয়া। এটি নরকে নারায়ণের সঙ্গে, বর্তমানকে অতীতের সঙ্গে যুক্ত করার প্রক্রিয়া।

মোদী বলেন, ভারতবর্ষের বিবিধের মাঝে একতার উদাহরণ। আর ভগবান রাম তার অন্যতম প্রতীক। কারণ ভারতবর্ষের সব প্রান্তে রাম বিরাজমান– নানা নামে নানা রূপে। শুধু ভারতেই নয় ভারতের বাইরে অন্তত এক ডজন দেশে নানা রূপে ভগবান রাম পূজিত। ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, কম্বোডিয়া, লাও, থাইল্যান্ড, নেপাল শ্রীলংকা,চিনেও রামের একাধিক রূপে আবাহন হয় আজও।

তাই আজকের এই ঐতিহাসিক মুহূর্তে শুধু ভারতবর্ষ নয় বিশ্ব তাকিয়ে রয়েছে আর সাক্ষী হচ্ছে। ভারতবর্ষ আজ রামময়। তিনি বলেন, রাম আসলে মানবতার অনুপ্রেরণা। অযোধ্যার রামমন্দির সমৃদ্ধ ভারত প্রকাশ জ্যোতি হয়ে জ্বলবে বলেও দাবি করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।
ছবি: এএনআই।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here