কংগ্রেস প্রতিবেশী দেশ থেকে আসা নিপীড়িত শরণার্থীদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করে কিন্তু পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নয় : মোদী

আমাদের ভারত,২ জানুয়ারি: বৃহস্পতিবার কর্নাটকে একটি সভায় প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে কংগ্রেস এবং বিরোধীদের আন্দোলন করা নিয়ে জোরদার আক্রমণ করেন। প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, কংগ্রেস এবং তার সহযোগী দলগুলি দেশের সংসদের বিরুদ্ধে ময়দানে নেমেছে। তাদের আন্দোলন প্রতিবেশি দেশ থেকে আসা নিপীড়িত শরনার্থীদের বিরুদ্ধে। অথচ কংগ্রেস পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের উপর হওয়া অত্যাচারের বিরোধিতা কখনো করে না।

তিনি বলেন, কয়েক সপ্তাহ আগেই সংসদ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন তৈরি করে এক ঐতিহাসিক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। কিন্তু কংগ্রেস এবং তার সহযোগী দলগুলি দেশের সংসদের বিরুদ্ধে ময়দানে নেমে আন্দোলন করছে। মোদী বলেন, এরা পাকিস্তান থেকে আসা দলিত, পিছিয়ে পড়া প্রতারিতদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছে।

মোদী বলেন, পাকিস্তানের জন্মই হয়েছিল ধর্মের উপর ভিত্তি করে। আর তখন থেকেই সেখানে ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার শুরু হয়। সময়ের সঙ্গে পাকিস্তানে বসবাসকারী হিন্দু, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ এবং পার্সিদের উপর অত্যাচারের মাত্রাও বেড়েছে। লাখ লাখ মানুষ নিজের ঘর ছেড়ে ভারতে চলে আসতে বাধ্য হয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পাকিস্তান সেখানকার সংখ্যালঘুদের মষ ওপর অত্যাচার করেছে কিন্তু কংগ্রেস এবং বাকি বিরোধী দলগুলি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কিছু বলছে না। বরং নিপীড়িতদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছে বিরোধীরা। তাঁর কথায় , “যারা আজ ভারতের সংসদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছে তাদেরকে আমি বলতে চাই, সময় এসেছে আজআন্তর্জাতিক স্তরে পাকিস্তানের মুখোশ টেনে খুলে দেওয়ার। তাই আপনাদের যদি স্লোগান দিতেই হয় তাহলে পাকিস্তানে যেভাবে সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার হচ্ছে তার বিরুদ্ধে স্লোগান দিন। তার বিরুদ্ধে মিছিল বার করুন। পাকিস্তান থেকে আসা অত্যাচারিত হিন্দু, দলিত পীড়িত শোষিতদের সমর্থনে মিছিল বার করুন।”

মোদী কটাক্ষ করে বলেন, কংগ্রেস ও তার। সহযোগী দলগুলি শরণার্থীদের বিরুদ্ধে মিছিল বার করছে। অথচ যে পাকিস্তান সেখানকার সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার করছে তাদের বিরুদ্ধে মুখে তালা দিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন,”আমাদের কর্তব্য পাকিস্তান সহ প্রতিবেশী দেশ থেকে আসা শরণার্থীদের সাহায্য করা। পাকিস্তান থেকে আসা হিন্দু এবং দলিতদের তাদের ভাগ্যের উপর ছেড়ে না দেওয়া। পাকিস্তান থেকে আসা শিখ জৈন এবং পার্সী পরিবারকে সাহায্য করা আমাদের দায়িত্ব। তিনি বলেন, যারা আজ সংসদের বিরুদ্ধে দেশে আন্দোলন করছেন, আমি চাইবো আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে পাকিস্তানের আসল রূপ তুলে ধরতে তারা আন্দোলন করুক। গত ৭০ বছর ধরে পাকিস্তান যা যা করেছে তার বিরুদ্ধে তারা আন্দোলন করুন। পাকিস্থানে হিন্দুদের উপর অত্যাচার হচ্ছে। কিন্তু কংগ্রেস পাকিস্তানের বিরুদ্ধে না বলে শরণার্থীদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছে। আর আমরা ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কাজ করছি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here