কট্টরপন্থা- মৌলবাদ বিশ্বশান্তি ও উন্নয়নের পরিপন্থী, আন্তর্জাতিক মঞ্চে আফগানিস্থান নিয়ে ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা মোদীর

আমাদের ভারত, ১৭ সেপ্টেম্বর:
শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী তাজিকিস্তানের রাজধানীতে অনুষ্ঠিত সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশন এর ২১তম বৈঠকে বক্তব্য রাখেন। সম্মেলনে যোগদান করে এসইও-র কুড়ি বছর পূর্তিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সংগঠনকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। এসইওর সম্প্রসারণের ফলে যুক্ত হওয়া ইরান, সৌদি আরব, আরব আমিরশাহী এবং ইজিপ্টকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। একই সঙ্গে এমন একটি আন্তর্জাতিক মঞ্চে যেখানে চিন ও পাকিস্তানের উপস্থিতিতেই কট্টরপন্থাকে এই মুহূর্তে সবথেকে বড় সমস্যা বলে চিহ্নিত করেছেন।

তাঁর কথায় মধ্যএশিয়া অঞ্চলে শান্তি সুরক্ষা ও বিশ্বাসের আবহ বজায় রাখা কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি এখন। তালিবানদের আফগানিস্থান অধিগ্রহণের ঘটনা উল্লেখ করে, তাঁর স্পষ্ট বক্তব্য, বাড়তে থাকা মৌলবাদের হাত থেকে এই অঞ্চলকে রক্ষা করা দরকার। এসইও-র উচিত এই সমস্যার সমাধানে সকলের সাথে মিলে একসাথে কাজ করা। প্রধানমন্ত্রী এসইওর অন্তর্ভুক্ত সকল দেশকে অনুরোধ করেছেন আভ্যন্তরীণ যোগাযোগ বৃদ্ধির বিষয়ে জোর দেওয়ার জন্য। এর সাহায্যে দেশগুলির মধ্যে বিভিন্ন প্রকল্প রূপায়ণ সহজ হবে বলে মনে করেন তিনি।

মোদী জানিয়েছেন, ইরানের চাবাহার বন্দর ভারত– আফগানিস্থানের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা বাড়াতে সাহায্য করেছে। মধ্য এশিয়ার সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের কথা জানিয়েছেন তিনি। তার কথায়, “আমরা বিশ্বাস করি স্থলবেষ্টিত মধ্য এশিয়ার দেশগুলো ভারতের বিশাল বাজারের সাথে সংযোগ স্থাপনের মাধ্যমে ব্যাপক ভাবে উপকৃত হতে পারে।” তিনি বলেন, এসসিও-র সকল সদস্য রাষ্ট্রকে এটা নিশ্চিত করতে হবে যে এই সংযোগ প্রকল্পগুলি অন্য দেশের বর্তমান পরিস্থিতি দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।’ অবশ্যই জাতির সার্বভৌমত্বকে সম্মান করেই প্রকল্পগুলি রূপায়ণ করতে হবে বলে তিনি মত প্রকাশ করেন।

এই সম্মলনে উপস্থিত ছিল চিন ও পাকিস্তান উভয়েই। নিজের ভাষণে এই দুই দেশের নাম না করেও কার্যত দিল্লির অবস্থান স্পষ্ট করে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী বলে মত কূটনৈতিক মহলের। আজ প্রধানমন্ত্রী আফগানিস্থান পরিস্থিতিকে সামনে রেখে কট্টরপন্থাকে আগামী দিনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে তুলে ধরতে চেয়েছেন। তিনি বিশ্বভ্রাতৃত্বের কথা বলেছেন। মোদী বলেছেন, সংযোগ কখনোই একপাক্ষিক হয় না। দ্বিপাক্ষিক আলোচনার সহযোগিতা, সততাকে সামনে রেখে সংযোগ স্থাপন করা হয়। একে অপরের দেশের সীমানার ভিতরে একাত্মবোধকে সম্মান করার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সংযোগ স্থাপিত হয়।”

আফগানিস্থান প্রসঙ্গকে সামনে এনে মোদী বলেন, কুড়ি তম এসইও বৈঠক ভাবিয়ে দিচ্ছে যে আগামী এসসিও বৈঠক কী হতে পারে? তিনি বলেন, এই মুহূর্তের বড় চ্যালেঞ্জ হলো শান্তি, স্বচ্ছতা ও বিশ্বাস যোগ্যতার অভাব সংক্রান্ত চ্যালেঞ্জ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here