আমফানের ক্ষয়ক্ষতি দেখতে রাজ্যে প্রধানমন্ত্রী, কপ্টারে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী-রাজ্যপাল

আমাদের ভারত, রাজেন রায়, কলকাতা, ২২ মে: ঝড়বিধস্ত পশ্চিমবঙ্গকে দেখতে আসার জন্য নবান্ন থেকেই প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই ডাকে সাড়া দিয়ে শুক্রবার সকাল ১১ টা নাগাদ রাজ্যে এলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিমানবন্দরে তাঁকে অভ্যর্থনা জানানোর জন্য উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যপাল। ইতিমধ্যেই ৫০ লক্ষ টাকা মুখ্যমন্ত্রীর তহবিলে দান করেছেন রাজ্যপাল।

জানা গিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী এবং রাজ্যপালকে সঙ্গে নিয়ে রাজ্যের বিধ্বস্ত জেলাগুলির পরিস্থিতি আকাশপথে পর্যবেক্ষণ করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, এদিন আকাশপথে রাজারহাট, গোসাবা, মিনাখাঁ, সন্দেশখালি এবং হিঙ্গলগঞ্জ পরিদর্শন করেন। প্রধানমন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্যপালের সঙ্গে পরিদর্শনে যান কেন্দ্রের দুই প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ও দেবশ্রী চৌধুরি। তাঁরা বসিরহাট কলেজের বৈঠকেও উপস্থিত বলে জানা গিয়েছে।

এর পর প্রধানমন্ত্রী সহ সকলেই বসিরহাটে প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন ক্ষয়ক্ষতির মূল্যায়ন করতে। বৈঠকের প্রধানমন্ত্রী কলকাতা বিমানবন্দরের উদ্দেশে রওনা দেবেন। এরপর ওড়িশার ভুবনেশ্বরের দিকে রওনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রী কপ্টারে করে পরিদর্শনে যাওয়ার আগে বিমানবন্দরেই দুটি সংক্ষিপ্ত বৈঠকে বসেন রাজ্য বিজেপির এক প্রতিনিধি দলের সঙ্গেও। বিজেপির ওই প্রতিনিধি দলে ছিলেন দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, দলের প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহা, সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ। এদিন ওই সংক্ষিপ্ত বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বাংলার এই বিপর্যয়কে জাতীয় বিপর্যয় বলে চিহ্নিত করতে প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন। পরিস্থিতি দেখে বিষয়টি বিবেচনা করে দেখবেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here