মোদীর জনপ্রিয়তা বাড়ছে হু হু করে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হিসাবে নেই, বলছে সমীক্ষা

আমাদের ভারত, ৮ আগস্ট: দেশে হু হু করে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। সীমান্তে চোখ রাঙাচ্ছে চিন। অর্থনৈতিক অবস্থা এখনো সেভাবে উঠে দাঁড়ায়নি। প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে এমনই একাধিক সমালোচনার ঝড় তুলেছেন বিরোধীরা। কিন্তু এসব কোনও কিছুই মোদীর জনপ্রিয়তা হ্রাস করতে পারেনি। বরং পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদীকেই চাইছে দেশের বড় অংশের মানুষ।

বাড়ছে করোনার গ্রাফ। কিন্তু তার মধ্যেও বাড়ছে মোদীর জনপ্রিয়তা। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সমীক্ষায় তেমনই ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। ইন্ডিয়া টুডে এবং কার্ভি ইনসাইটের করা “মুড অফ দা নেশন” সমীক্ষার ফলাফল বলছে, দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বেশিরভাগ মানুষের পছন্দ নরেন্দ্র মোদীকেই।

দেশের ৬৬ শতাংশ মানুষের ধারণা, মোদীর নেতৃত্বেই দেশ চূড়ান্ত প্রতিকূল পরিস্থিতি কাটিয়ে আত্মনির্ভর হয়ে উঠবে। সমীক্ষায় মোদীর থেকে বহু বহু পিছিয়ে দ্বিতীয় পছন্দ হিসেবে উঠে এসেছেন রাহুল গান্ধী। তাঁর ঝুলিতে রয়েছে মাত্র ৮ শতাংশ মানুষের ভোট। তার থেকে পিছিয়ে রয়েছেন তার মা কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। তিনি পেয়েছেন ৫% জনগণের সমর্থন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরবিন্দ কেজরিওয়ালরা পেয়েছেন নগণ্য ভোট।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে এই সমীক্ষায় দেখা গিয়েছিল মোদী পেয়েছিলেন ৫৩ শতাংশ ভোট। কিন্তু গত কয়েক মাসের করোনা পরিস্থিতিতে মোদীর জনপ্রিয়তা আগের তুলনায় আরো অনেকটা বেড়েছে। আর তা থেকেই স্পষ্ট বিরোধীদের আক্রমণ খুব একটা কাজ দিচ্ছে না।

অন্যদিকে ওই সমীক্ষাতে এই নিয়ে তৃতীয়বার দেশের সেরা মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন যোগী। তার পক্ষে ভোট পড়েছে ২৪ শতাংশ। আগেরবারের সমীক্ষায় যোগী পেয়েছিলেন ১৮ শতাংশ ভোট। দেশের সেরা সাতজন মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যে ৬ জন অকংগ্রেসী। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই সমীক্ষায় দেশের চতুর্থ স্থান পেয়েছেন ।দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তৃতীয় স্থানে রয়েছেন ওয়াই এস জগনমোহন রেড্ডি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here