মর্গে আর জায়গা নেই, তাই কোভিডের মৃতদেহের স্তুপ বাইরে মাটিতেই পড়ে! রায়পুরের ভয়াবহ ছবি ভাইরাল

আমাদের ভারত, ১৩ এপ্রিল:বড় বড় সাদা চটের ব্যাগ। তাতে ভরা রয়েছে মৃতদেহ। মুখের কাছটা খানিকটা প্লাস্টিকের অংশ। তাতে বাইরে থেকে মৃতদেহের মুখ দেখতে পাওয়া যায়। এমনই সাদা বস্তাবন্দি মৃতদেহ স্তুপ ছড়িয়ে পড়ে রয়েছে মর্গের বাইরের। ওদের মধ্যে কিছু দেহ পড়ে রয়েছে রোদে মাটিতেই। কোভিডেই কারণেই মৃত্যু হয়েছে এই রোগীদের কিন্তু মর্গে রাখার জায়গা নাই। তাই এভাবেই দেহগুলি বাইরে পড়ে রয়েছে। এইদৃশ্য ছত্তিশগড়ের রাজধানী রায়পুরের সবচেয়ে বড় সরকারি হাসপাতালের।ছবিটি প্রকাশ্যের আসতেই ভাইরাল হয়েছে।

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেশ কয়েকটি রাজ্যের মতো ছত্রিশগড়েও পরিস্থিতিও বেসামাল । সেখানকার পরিস্থিতি কতটা খারাপ হয়েছে তা বুঝিয়ে দিচ্ছে এই ছবি। রায়পুরে রয়েছে ভীমরাও আম্বেদকর মেমোরিয়াল হাসপাতালে প্রথম থেকেই করোনা রোগীদের চিকিৎসা চলছে। কিন্তু এই প্রথম সেখানে এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে হাসপাতালে স্বাস্থ্যকর্মীরা বলছেন।

ছত্রিশগড়ে গত কয়েক দিন ১০ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন রোজ। ফলে দৈনিক মৃত্যুর হার ও বেড়ে গিয়েছে। আর তাতেই ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। আর সেটাই তুলে ধরেছে এই ছবি।

রায়পুরের প্রধান স্বাস্থ্য অধিকারিক বলেছেন, কেউ ভাবতে পারিনি একবারে এত লোকের মৃত্যু হবে। সাধারণত যে সংখ্যায় মৃত্যু হয় তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা রয়েছে। মৃত্যু ১০ থেকে ২০তে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করলাম। তারপরই মৃত্যের সংখ্যা ৫০-৬০ পেড়িয়ে গেল। এত কম সময় এত দেহ রাখার একসাথে ব্যবস্থা করা কি সম্ভব?

শুধু হাসপাতালের বাইরে দেহ পড়ে থাকাই নয়, দেহ দাহ করা নিয়েও সমস্যা দেখা দিচ্ছে। জানা গেছে রায়পুর শহরের রোজ ৫৫-র বেশি দেহ দাহ করা হচ্ছে। যার মধ্যে অধিকাংশই করোনা রোগীর দেহ। তাই সমস্যা সমাধানে রাজ্য সরকার শহরের এলাকায়আরো বেশি সংখ্যায় বৈদ্যুতিক চুল্লি তৈরির নির্দেশ দিয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here