সংখ্যালঘু প্রার্থী দেওয়া নিয়ে মুকুল রায় ও দিলীপ ঘোষের মনোমালিন্য চরমে

নীল বনিক, আমাদের ভারত, কলকাতা, ২২ সেপ্টেম্বর:
এবার সংখ্যালঘু প্রার্থী নিয়ে বিজেপিতে মনোমালিন্য মুকুল রায় ও বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এর মধ্যে। মুকুল রায় চাইছেন আসন্ন ২০২১ এর বিধানসভা ভোটে ৬০ সংখ্যালঘু প্রার্থীকে বিজেপির টিকিটে দাঁড় করাতে। মুকুল রায়ের এই প্রস্তাবে সায় নেই দিলীপ ঘোষের। বিজেপি সূত্রের খবর, আর তাতেই এই দুই নেতার দূরত্ব আরও বেশি বেড়েছে।

দিল্লিতে রবিবার বিজেপির রাজ্য নেতারা বৈঠকে বসেন। সেই বৈঠকে হাজির ছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায় রাহুল সিনহা। বৈঠকে হাজির ছিলেন রাজ্য বিজেপির পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও সহকারি পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন।

দলীয় সূত্রের খবর বৈঠকে সংখ্যালঘু প্রার্থী নিয়ে প্রথমেই মুখ খোলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তিনি জানান, সংখ্যালঘু সমাজের মধ্য থেকে মোট ৬০ জনকে প্রার্থী করতে হবে। কিন্তু মুকুল রায়ের প্রস্তাবে সায় নেই বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের। বিজেপি রাজ্য সভাপতি সংখ্যালঘু সমাজের থেকে মোট ১২ জনকে প্রার্থী করতে আগ্রহী। আর তাতেই মুকুল রায়ের সঙ্গে ফের আরও একবার মতপার্থক্য তৈরি হয় বিজেপির রাজ্য সভাপতির।

দিল্লিতে মুকুল রায় ঘনিষ্ঠমহলে জানিয়েছেন, সংখ্যালঘু সমাজের থেকে দল প্রার্থী না করলে আগেই আমরা পিছিয়ে পড়ব। মুকুল রায়ের যুক্তি তৃণমূল কংগ্রেস ৬০–এর উপর আসনে সংখ্যালঘু মুখ দাঁড় করাবে। বাম কংগ্রেস জোটও একই রাস্তায় হাঁটবে। আর বিজেপি যদি ১২ টি আসনে প্রার্থী দাঁড় করায় তাহলে লাভ হবে তৃণমূল কংগ্রেসের। তৃণমূল কংগ্রেস প্রচার করার সুযোগ পাবে বিজেপিতে মুসলিমদের কোনও জায়গা নেই। মুকুল রায় ঘনিষ্ঠমহলে আরও জানিয়েছেন, রাজ্যের ৯০ টির আসনে সংখ্যালঘু ভোট ফ্যাক্টর। তাতে যদি ১২টি আসনে আমরা মুসলিম প্রার্থী দিই তাহলে প্রথমেই পিছিয়ে পড়ব। এই নিয়ে দুই নেতার মনোমালিন্য চরমে পৌছেছে। তবে, মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানাগেছে, এখনই হাল ছাড়ছেন না মুকুল রায়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here