স্কুলের ক্রিড়া প্রতিযোগিতায় ছাত্রের মাথায় জ্যাভলিন ফলা গাঁথার ঘটনায় দোষ কার প্রশ্ন একাধিক

আমাদের ভারত, হাওড়া, ১৪ জানুয়ারি: সোমবার বিকেলে শ্যামপুরের নাওদা নয়নচন্দ্র বিদ্যাপীঠে বাৎসরিক ক্রিড়া প্রতিযোগিতা চলাকালীন আহত ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র সৌরদীপ বেরার ঘটনার দায় কার এই নিয়ে একাধিক প্রশ্ন চিহ্ন দেখা দিয়েছে। প্রতিযোগিতা চলাকালীন সৌরদীপ মাঠে চলে এসেছিল, বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এই দাবি মানতে রাজি নয় অভিভাবকেরা। তাদের মতে প্রতক্ষ্যদর্শী এবং সৌরদীপের সহপাঠীদের বক্তব্য প্রতিযোগিতা চলাকালীন সৌরদীপ মাঠের পাশে বসে থাকার সময় জ্যাভলিন বেঁকে তার দিকে চলে আসায় এই বিপত্তি।

এদিকে সোমবার রাতেই এসএসকেএমে আহত ছাত্রের মাথায় অস্ত্রপ্রচার করার পর বর্তমানে তাকে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। অন্যদিকে সোমবার বিকেলে ছেলের অবস্থা শোনার পর থেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েছে সৌরদীপের মা রিমা বেরা। সোমবার থেকে খাওয়া দাওয়া বন্ধ করে দিয়ে তাঁর একটাই কথা ছেলে যেন সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরে আসে। তার বক্তব্য খেলা পাগল ছেলে সোমবার বিদ্যালয়ে যাওয়ার পর তার এই অবস্থা হবে ভাবতেই পারছেন না। অবিলম্বে বিদ্যালয়ে এইসব খেলা বন্ধ করে দেওয়ার দাবি জানান তিনি।

অপরদিকে সোমবার এই ঘটনার পরেই নড়েচড়ে বসল শ্যামপুর ২ নং ব্লক প্রশাসন। ব্লক প্রশাসন সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই সমস্ত বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত করার আগে ইভেন্ট নির্বাচন করার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করার কথা বলা হয়েছে।

অপরদিকে হাওড়া জেলা অতিরিক্ত বিদ্যালয় পরিদর্শক বনমালী জানা জানান, ছাত্রটির দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি এবং মহকুমার সমস্ত বিদ্যালয়কে এই ধরনের বিপদজনক খেলার আয়োজন করা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here