৩০টি ঘোষ পরিবারকে বয়কটের ডাক, নষ্ট করে দেওয়া হয়েছে ফসল, আতঙ্কে গ্রামের মানুষ

শ্রীরূপা চক্রবর্তী, আমাদের ভারত, ২৬ এপ্রিল:
এই লকডাউন পরিস্থিতিতে মুর্শিদাবাদের ডোমকল থানার অন্তর্গত পার রঘুনাথপুর গ্রামের ৩০ পরিবারকে বয়কট করা হয়েছে বলে অভিযোগ। বয়কটের কারণে তারা কোনো নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে পারছেন না। গ্রামের ঘোষ পাড়ার বয়কট হওয়া ওই পরিবারগুলি জানিয়েছে, এই পরিস্থিতি চলতে থাকলে তাঁরা বড় সংকটে পড়বেন।

বয়কট‌ হওয়া এক গ্রামবাসী রতন ঘোষ বলেন, একটি মুদির দোকানে এক কলা বিক্রেতার সঙ্গে শুরু হওয়া বচসার জন্য তাদের এখন বড় মূল্য দিতে হচ্ছে। যদিও তারা আলোচনার মাধ্যমে বচসার সমাধান চেয়েছিলেন। কিন্তু রতন ঘোষের অভিযোগ, মুদি দোকানে বচসার প্রেক্ষিতে তাদের বাড়িতে হামলা হয়। এমনকি শিশুদের উপরেও আক্রমণ হয়। নষ্ট করে দেওয়া হয়েছে তাদের জমির শস্য, গরুর খাবার। আহত হয়েছে শিশু সহ কয়েকজন গ্রামবাসীও। এই ঘটনা ২২ এপ্রিলের। খবর পেয়ে পুলিশ এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়।


কিন্তু রতন ঘোষ জানান , শুক্রবার বিকেল থেকে গ্রামের ঘোষপাড়ার ৩০টি পরিবারকে বয়কটের ডাক দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ তারপর থেকে গ্রামের কোনো দোকানদার আর তাদের কোনো জিনিস বিক্রি করছে না। ফলে লকডাউন পরিস্থিতিতে তারা নিত্যপ্রয়োজনীয় কোনো জিনিস আর পাচ্ছেন না। তারা আশঙ্কিত তাদের কপালে ঠিকমত খাবারও জুটবে না।

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের স্থানীয় কার্যকর্তা কুশল কুন্ডু বলেন, তারা এই বিষয়ে প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলেছেন। গ্রামবাসীর কাছে তারা নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যে পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। তবে ডোমকলের এসডিপিও মহম্মদ ফারুক চৌধুরিকে ফোন করলে তিনি বলেন, এই ঘটনা সম্পর্কে তাঁর কাছে কোনো খবর নেই।

1 টি মন্তব্য

Leave a Reply to Kingkar S Biswas উত্তর বাতিল করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here