উত্তরাখন্ডের পর এবারে বিহারের ভুখন্ডও নিজেদের বলে দাবি করল নেপাল

আমাদের ভারত, ২২ জুন: সীমান্ত সমস্যা উত্তরোত্তর বেড়েই চলেছে। একদিকে লাদাখে চিনের সঙ্গে সীমান্ত সমস্যা চরম আকার নিয়েছে। তার মধ্যে আবার নেপালও সীমান্ত সমস্যা তৈরি করল নতুন করে। ইতিমধ্যেই উত্তরাখন্ডের তিনটি এলাকা দেশের নতুন মানচিত্রে ঢুকিয়ে নিয়ে নিজেদের সংসদে নতুন মানচিত্র পাশ করেছে নেপাল সরকার। এরপর আবারও তারা বিহারের আরোও একটি অঞ্চলকে নিজেদের বলে দাবি করলো। নেপাল সীমান্তে বিহারের পূর্ব চম্পারণ জেলায় বাধ মেরামতির কাজ চলছিল বিহারের জলসম্পদ দফতরের উদ্যোগে। সেই কাজ বন্ধ করে দিয়েছে নেপাল। তারা জানিয়েছে ওই এলাকা তাদের ভূখণ্ডের মধ্যে পড়ে।

বিহার সরকারের তরফে জানানো হয়েছে লাল বাকি নদীতে বাঁধ তৈরির কাজ জোর করে থামিয়েছে নেপাল সরকার। অথচ এই লাল বাকি নদীতে বাঁধ ছিল বহুদিন আগে থেকে। হঠাৎ করেই তারা এই কাজে বাধা দিয়েছে। বিহার সরকার নেপালের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি মীমাংসা করার চেষ্টা করলেও তাতে আমল দেয়নি নেপাল। ফলে বিহার সরকার পুরো বিষয়টি জানিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে ও দিল্লিতে নেপালের দূতাবাসে।

সম্প্রতি নিজেদের দেশের নতুন মানচিত্রে উত্তরাখন্ডে কালাপানি, লিপুলেখ,লিম্পিয়াধুরা ঢুকিয়ে নিয়েছে নেপাল সরকার। এক্ষেত্রে ভারতের আপত্তিকে তারা কোন আমল দেয়নি। সেই মানচিত্র তারা নেপালের সংসদে পাশ করিয়ে নিয়েছে ১৩ জুন। নেপালের সংসদে নতুন মানচিত্র পাস হবার পরেই আপত্তি জানিয়েছিল ভারত। বিদেশ মন্ত্রকের তরফে স্পষ্ট বার্তা দেওয়া হয়েছিল, দেশের সীমানা এই ভাবে বাড়িয়ে নেওয়াকে ভারত ভালো ভাবে দেখছে না।

বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বিবৃতি দিয়ে বলেন, “আমরা লক্ষ্য করেছি নেপালের সংসদে পরিবর্তিত মানচিত্রের বিল পাস হয়েছে। নতুন মানচিত্রে ভারতের অংশকে অন্তর্ভুক্ত করে নেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে ভারত আগেই নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছে।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here