রেকর্ড সংক্রমণ-রোগী বৃদ্ধিতে কমছে সুস্থতা! ২৪ ঘন্টায় নতুন আক্রান্ত ৩৮৬৫, মৃত ৬১, সুস্থ ৩১৮৩

রাজেন রায়, কলকাতা, ১৭ অক্টোবর: চিকিৎসকদের আশঙ্কা মতো শুরু হয়ে গিয়েছে করোনা সুনামির পদধ্বনি। ফের রেকর্ড করোনা সংক্রমণে হাসপাতালে রেকর্ড সংখ্যক রোগীবৃদ্ধি। ফলে ফের কমল সুস্থতার হার। পরিস্থিতি যেদিকে এগোচ্ছে, তাতে চলতি সপ্তাহেই দৈনিক সংক্রমণ ৪০০০ ছুঁয়ে ফেলবে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের।

শনিবারের বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় নতুন সংক্রমণের হদিশ ৩৮৬৫ জনের, মৃত্যু ৬১ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৩১৮৩ জন। সুস্থতার হার সামান্য কমে দাঁড়িয়েছে ৮৭.৬৬ শতাংশে। শুক্রবারের তুলনায় সংক্রমণ বেড়েছে ৯৪ জনের এবং সুস্থতা কমে গিয়েছে ১৫ জনের। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন ৩৩১২১ জন। এ দিন হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে ৬২১ জন, যা সাম্প্রতিক কালের মধ্যে সর্বোচ্চ।

২৪ ঘন্টায় ৩৮৬৫ জন নতুন আক্রান্তে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৩১৭০৫৩ জন। এদিন আরও ৬১ জনের মৃত্যু হওয়ায় রাজ্যে সরকারি হিসেবে মোট করোনায় মৃত্যু ৫৯৯২ জনের। ২৪ ঘন্টায় আরও ৩১৮৩ জন সুস্থের হিসেব ধরলে মোট সুস্থ হলেন ২৭৭৯৪০ জন। এদিনও অন্যান্য জেলার সঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনাতে ৬১৭ জন, কলকাতায় ৬০৮ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ২৭২ জন, হুগলিতে ২০৩ জন, নদিয়ায় ১৫৪ জন, পূর্ব মেদিনীপুরে ১২৭ জন, হাওড়ায় ১২৫ জন, দার্জিলিংয়ে ১১৯ জন, পশ্চিম মেদিনীপুরে ১০০ জন সুস্থ হয়েছেন।

বুলেটিনে আরও জানানো হয়েছে, এদিন পর্যন্ত রাজ্যের ৯২টি ল্যাবে মোট করোনা টেস্ট করা হল ৩৯৪৭৭৫০ জনের। যার মধ্যে ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৩৪২৮ জনের।

রাজ্যের ৯৩টি কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতাল, ৩৮টি সরকারি এবং ৫৫টি বেসরকারি হাসপাতালে মোট
১২৭৫১টি বেড আছে, আইসিইউ পরিষেবা রয়েছে ১২৪৩ জনের। ভেন্টিলেটর রয়েছে ৭৯০টি। তার মধ্যে মাত্র ৩৭.৮২ শতাংশ রোগী ভর্তি আছেন।

সরকারি ৫৮২টি কোয়ারেন্টাইনে এখন রয়েছেন ২৪০৫ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ১০৭৮৫৫ জনকে। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৯২৫৭১ জন। ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ৭২১৮০৬ জনকে। রাজ্যের ২০০টি সেফ হোমে ১১৫০৭টি বেড রয়েছে এবং তাতে ১২৩৭ জন রোগী রয়েছেন।

এছাড়া এদিনের মৃত্যু হিসেবে বুলেটিনে জেলাওয়াড়ি তথ্যে জানানো হয়েছে, এদিন রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৬১ জনের। এ দিন উত্তর ২৪ পরগনায় ১৫ জন, কলকাতায় ১৫ জন ও হাওড়ায় ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া নদিয়া, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৪ জন করে, পূর্ব মেদিনীপুরে ৩ জন, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি ও মালদায় ২ জন করে আর দার্জিলিং, পশ্চিম মেদিনীপুর ও পশ্চিম বর্ধমানে ১ জন করে আরও ২৪ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

এদিন রাজ্য সংক্রমণ বেড়েছে রেকর্ড সংখ্যক পরিমাণে। এদিন অন্যান্য জেলার সঙ্গে কলকাতায় ৭৮৪ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ৭৯২ জন, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ২৫৩ জন, হাওড়ায় ২৪৫ জন, নদিয়ায় ১৫৮ জন, পশ্চিম মেদিনীপুর ও পূর্ব মেদিনীপুরে ১৫৪ জন করে, হুগলিতে ১৪৮ জন, পূর্ব বর্ধমানে ১২৩ জন, পশ্চিম বর্ধমানে ১২১ জন, জলপাইগুড়িতে ১১৮ জন ও দার্জিলিংয়ে ও ১০৪ জনের সংক্রমণ উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিনও সংক্রমণ বেড়েছে রাজ্যের সব জেলাতেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here