আগামী দু-দিন সারা দেশে র‍্যাপিড টেস্ট বন্ধ করতে বলল আইসিএমআর, ত্রুটিপূর্ণ কিটের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হবে

আমাদের ভারত, ২১ এপ্রিল : র‍্যাপিড টেস্টিং কিট নিয়ে একের পর এক অভিযোগ পাওয়ার পর। আজ রাজ্যগুলিকে আগামী দুদিন কোভিড-১৯ টেস্ট কিট ব্যবহার করতে নিষেধ করল আইসিএমআর। রবিবার পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফেও নাইসেডের পাঠানো কিট নিয়ে অভিযোগ করা হয়েছিল। জানা গেছে রাজস্থান সরকারও এই টেস্ট কিট ত্রুটিপূর্ণ বলে জানিয়েছে। তারপরই বিষয়টি তদন্ত করে দেখতে দু-দিন কিট ব্যবহার করতে নিষেধ করা হয়েছে রাজ্যগুলিকে।

দেশজুড়ে করো সংকটের মধ্যেই র‍্যাপিড টেস্ট কিট নিয়ে আশঙ্কার কালোমেঘ ঘনালো। আইসিএমআর রাজ্যগুলিকে পরামর্শ দিয়েছে আগামী দুদিন যেন কোভিড-১৯ এর র‍্যাপিড টেস্টিং কিট যেন ব্যবহার না করেন তারা। কারণ এই টেস্টিং কিট নিয়ে ইতিমধ্যেই একাধিক অভিযোগ পেয়েছেন তারা।

জানা গেছে পশ্চিমবঙ্গ, রাজস্থান সহ বেশ কয়েকটি রাজ্য টেস্টিং কিট নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছে। আজ থেকে রাজস্থানে ওই টেস্টিং কিট ব্যবহার বন্ধ করেছেন তারা। রাজস্থান সরকার জানিয়েছে ওই টেস্টিং কিটের মাত্র ৫.৪ শতাংশ সঠিক রিপোর্ট পাওয়া গেছে। রাজস্থানের ওই কিট গুলির মাধ্যমে করা নমুনা পরীক্ষার পর যে রিপোর্ট আসছে সে সম্পর্কে একটি রিপোর্ট তারা আইসিএমআরের কাছে পাঠিয়েছেন। রাজস্থানের স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানান এই কিটের মাধ্যমে মাত্র ৫% সঠিক রিপোর্ট পাওয়া যাচ্ছে। তিনি বলেন ১৮০ টি কেস যাদের আগেই সংক্রমিত হওয়ার নিশ্চিত রিপোর্ট পাওয়া গিয়েছিল,তাদের নমুনা এই কিট গুলি দ্বারা পরীক্ষণ করার পর দেখা গেছে মাত্র ৫.৪ শতাংশ সঠিক রিপোর্ট এসেছে। তাঁর কথায় যে কিটে পরীক্ষা করে সঠিক রিপোর্ট সঠিক আসছে না, সেই সেখানে পরীক্ষা করে কি লাভ? তিনি আরো বলেন, আগে থেকেই যারা পজিটিভ বলে জানা গিয়েছিল, তাদের ক্ষেত্রেও এই কিটের ব্যবহার করে কিটের অসফলতার প্রমাণ মিলেছে। ফলে এই কিট ব্যবহার করে কোন লাভ নেই।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে অভিযোগ করে বলা হয়েছিল আইসিএমআর তাদের ত্রুটিযুক্ত কিট পাঠিয়েছে। নাইসেডের তরফে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন ল্যাব থেকে ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে সেই কিট। তার বদলে পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ বায়োলজির দেওয়া কিটে র‍্যাপিড টেস্ট হয়েছে।

রবিবারই রাজ্যে স্বাস্থ্য দফতরের তরফে অভিযোগ করা হয়েছিল আইসিএমআর সরবরাহ করা ত্রুটিযুক্ত। এসব কিটে করা পরীক্ষার রিপোর্ট অসম্পূর্ণ আসছে। এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করে আইসিএ আরণাই সেটআইসিএমআর তরফে জানানো হয়েছে এই সবকটি কিট আমেরিকার ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের অনুমোদনপ্রাপ্ত। তবে সেগুলিকে কুড়ি ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার উপরে রাখায় ভুল ফল আসতে পারে বলেও জানিয়েছিলেন তারা। তাই ঘটনার তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলেও জানানো হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here