চিন ফের এগোনোর চেষ্টা করলে জবাব দেবে ভারত, লাদাখে চলেছে বায়ুসেনার নাইট অপারেশন!

আমাদের ভারত, ৭ জুলাই: গালওয়ান উপত্যকা থেকে দুই কিলোমিটার পিছিয়েছে চিনা সেনা। কিন্তু আগের অভিজ্ঞতা থেকে এবার অনেক বেশি সতর্ক ভারত। আর সেই জন্যই সারারাত পূর্ব লাদাখের বিস্তীর্ণ এলাকায় নিশ্ছিদ্র টহলদারি চালালো বায়ুসেনার অ্যাপাচে, চিনুক, মিগ সুখোই। চিনকে স্পষ্ট বার্তা ভারত শান্তি চায়, কিন্তু উস্কানি দিলে যোগ্য জবাব দিতে সর্বদা প্রস্তুত সেনা।

সারারাত ধরে সীমান্তবর্তী এলাকায় একাধিক যুদ্ধবিমান অ্যাপাচে চক্কর কাটতে থাকে।এই নাইট অপারেশনে ব্যবহার হয়েছে বায়ুসেনার মিগ ২৯, সুখোইর মত যুদ্ধবিমান। আকাশে উড়েছে অ্যাপাচের মত অ্যাটাক রেডি অত্যাধুনিক হেলিকপ্টার। টহল দিয়েছে চিনুক।

সীমান্তে শান্তির পক্ষে বারবার বার্তা দিয়েছে ভারত। কিন্তু উস্কানি দিলে তার যোগ্য জবাব দেওয়ার ক্ষমতা যে ভারতের আছে সেই বার্তা আবারো সোমবার রাতে স্পষ্ট করে দিয়েছে বায়ুসেনার এই নাইট অপারেশন। অর্থাৎ ভারতকে হালকাভাবে নিয়ে আবার এগোনোর চেষ্টা করলে চিনের পক্ষে খুব একটা বুদ্ধিমানের কাজ হবে না, তা স্পষ্ট করেছে বায়ুসেনার এই নাইট অপারেশন।

এক সিনিয়র ফাইটার প্লেন ক্যাপ্টেন বলেন, নাইট অপারেশনে একটা সারপ্রাইজ থাকে। তাছাড়া দিন হোক বা রাত যেকোনো সময়ই যে কোন অপারেশনে কাজ করার মতো দক্ষতা ও ইকুইপমেন্ট ভারতীয় বায়ুসেনার রয়েছে। ভারত-চিন সীমান্তে প্রথম উড়ান শুরু করে অ্যাপাচে হেলিকপ্টার। নাইট ভিশন গগলস পড়ে টেক অফ করতে দেখা যায় বায়ুসেনার পাইলটদের। রাত এগারোটা থেকে চক্কর কাটতে শুরু করে ফাইটার বিমান।

যুদ্ধবিমানের বিকট শব্দ হতে থাকে পাহাড়ঘেরা এয়ারবেসে। আর এই সবকিছু শত্রুপক্ষকে মনে ভয় ধরাবে তা বলাই বাহুল্য।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here