যৌথ প্রতীক নয়, দেওয়ালে আঁকতে হবে নিজেদের প্রতীক

39

আমাদের ভারত, রামপুরহাট, ১ মার্চ: যৌথ প্রতীক নয়। বিজেপি-তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই হবে জোট গড়ে। প্রতীক থাকবে নিজের নিজের। তবে দেওয়াল লিখনে জোটের কথা উল্লেখ করা হবে বলে জানিয়েছে বাম-কংগ্রেস। সামনেই পুরসভা নির্বাচন। সেই নির্বাচনে বামফ্রন্ট ও কংগ্রেসের মধ্যে জোট হচ্ছে ধরে নিয়ে রামপুরহাট পুরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে দেওয়াল লিখন করে কংগ্রেস। ওই ওয়ার্ডে কংগ্রেসের সম্ভব্য প্রার্থী সাহাজাদা হোসেন কিনু হাতের উপর কাস্তে হাতুড়ি প্রতীক আঁকতে শুরু করেন। এতেই প্রতীক নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়।

সিপিএমের জেলা কমিটির সদস্য সঞ্জীব বর্মণ বলেন, “পুরসভা নির্বাচনে তৃণমূল-বিজেপি শক্তিকে পরাস্ত করতে আমরা সার্বিক ঐক্য গড়ে তুলব। সেখানে বামফ্রন্টের পাশাপাশি ধর্মনিরপেক্ষ শক্তি হিসাবে কংগ্রেসের সঙ্গে আসন ভাগাভাগি করে লড়াই করব। যে ওয়ার্ড যারা পাবে সেখানে তাদের নিজস্ব প্রতীক আঁকতে হবে। সেখানে জোটের কথা উল্লেখ করা যেতে পারে। যৌথ কোনও প্রতীক আঁকা যাবে না”।

একই বক্তব্য হাঁসন কেন্দ্রের কংগ্রেস বিধায়ক মিল্টন রশিদের। তিনি বলেন, “ব্যালটে তো যৌথ প্রতীক স্থান পাবে না। ফলে সেই প্রতীক দেওয়ালে এঁকে লাভ হবে না। তাই যে ওয়ার্ড যারা পাবে তারা নিজেদের প্রতীক আঁকবে। আগে আমরা আসন নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব”।

সাহাজাদা হোসেন কিনু বলেন, “এই প্রতীক ভোটের নয়। জোটের বার্তা দিতে এই প্রতীক আঁকা হয়েছে। নির্বাচনে আসন বন্টনের পর নিজের নিজের প্রতীক আঁকা হবে। সেখানে শুধু জোটের কথা উল্লেখ করা হবে। শুধুমাত্র দুর্নীতিগ্রস্থ তৃণমূল এবং বিভেদকামী বিজেপিকে জোটের বার্তা দিতেই এই প্রতীক আঁকা হয়েছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here