হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত! ইনস্টাগ্রামের জিআইএফে শিবের হাতে ওয়াইনের গ্লাস-মোবাইল, অভিযোগ দায়ের বিজেপি নেতার

আমাদের ভারত, ৯ জুন: হিন্দু ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ উঠল ইনস্টাগ্রামের বিরুদ্ধে। সমালোচনার ঝড়ের মুখে পড়ল ফেসবুক মালিকাধীন অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টাগ্রাম। ফটো শেয়ারিং এই অ্যাপটিতে দেবাদিদেব শিবকে সঠিক ভাবে দেখানো হয়নি বলে এই অভিযোগ উঠেছে। অ্যাপের বিরুদ্ধে থানায় এফ আই আর দায়ের হয়েছে। এই ঘটনায় সরব হয়েছেন নেটাগরিকরাও।

ইনস্টাগ্রামে হালে নতুন ছবির স্টিকার এসেছে। আর সেখানেই মহাদেব শিবের একহাতে ওয়াইনের গ্লাস আরেক হাতে মোবাইল দেওয়া হয়েছে। এই স্টিকার প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল শুরু হয় নেট মহলে। ইনস্টাগ্রামের এইকাজে ক্ষুব্ধ নেটিজেনরা টুইটে তাদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। অনেকেই বলেছেন হিন্দু ভাবাবেগে চরম আঘাত করেছে এই জিআইএফ।

ইতিমধ্যেই দিল্লির বিজেপি নেতা মনিষ সিং দিল্লির পার্লামেন্ট স্ট্রিট থানায় ইনস্টাগ্রামের নামে অভিযোগ দায়ের করেছেন। ইন্সটাগ্রামের সিইও সহ অন্যান্য আধিকারিকদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। বিজেপি নেতা জানিয়েছেন স্টিকারটি না সরানো হলে তিনি ইনস্টাগ্রামের দপ্তরের সামনে গিয়ে ধর্নায় বসবেন।

ইনস্টাগ্রামে স্টোরি আপলোড করার সময় শিবের ছবি সার্চ করলেই এই ছবিটি দেখা যাচ্ছে। হিন্দু দেবতার এমন স্টিকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন বহু নেটিজেন।

প্রসঙ্গত, ফেব্রুয়ারিতে কনটেন্ট সম্পর্কের দায়িত্ববান ও দায়বদ্ধ থাকবে সোশ্যাল মিডিয়া গুলি, এই উদ্দেশ্যে একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করেছিল তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক। আপত্তিকর পোস্ট হলে তা ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে সরানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। এর আগে গুগল, আমাজনকে এই ধরনের কনটেন্ট সমস্যায় পড়তে হয়েছে। আমাজনে একটি বিকিনি কানাডায় বিক্রি হচ্ছিল, যেখানে কর্ণাটক রাজ্যের একটি পতাকার ছবি ছিল ও সবচেয়ে খারাপ ভাষা হিসেবে কন্নরের নাম বলা হয়েছিলো।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here