মাধ্যমিক পরীক্ষার মধ্যেই উচ্চস্বরে ডিজে বাজিয়ে চলল রাতভর অশ্লীল নাচের আসর, সমস্যায় ছাত্রছাত্রী থেকে গ্রামবাসী

5

আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ২১ ফেব্রুয়ারি:
চলছে মাধ্যমিক পরীক্ষা, এরইমধ্যে উচ্চস্বরে ডিজে বাজিয়ে রাতভর চলল অশ্লীল নাচের আসর। আর তার জেরে পড়াশোনাই করতে পারল না ওই এলাকার
পরীক্ষার্থীরা। ঘটনাটি উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ ব্লকের ভিটি কাটিহার গ্রামে। কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছেন রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মানস ঘোষ। রায়গঞ্জ থানার মারাইকুড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ভিটিকাটিহার গ্রামে বুধ ও বৃহস্পতিবার দুই দিন যাবদ মাধ্যমিক পরীক্ষার মধ্যে সারা রাত ডিজে বাজিয়ে চটুল নাচের আসর চলল। ডিজের আওয়াজে সাধারণ মানুষ থেকে মাধ্যমিকের ছাত্রছাত্রীরা চরম সমস্যায় পড়েন। অভিযোগ, পুলিশের ১০০ নম্বরে ডায়াল করেও পুলিশের পক্ষ থেকে কোনও রকম পদক্ষেপ নেওয়া
হয়নি।

তৃণমূল কংগ্রেস পরিচালিত রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মানস ঘোষ ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন। যারা এর আসর বসিয়েছিল তাদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেবার জন্য রায়গঞ্জ থানার আইসিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

গত ১৯ ও ২০ ফেব্রুয়ারি রায়গঞ্জ থানার ভিটিকাটিহার গ্রামে স্থানীয় কিছু মানুষ এক চটুল নাচের আসর বসিয়েছিল। টিকিটের দাম করা হয়েছিল ৪০ টাকা বলে খবর। সারা রাত ধরে চলে এই চটুল নাচ। মাইকের আওয়াজে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের পড়াশোনা শিকেয় ওঠে। শিক্ষানুরাগী কিছু মানুষ পুলিশের ১০০ নম্বরে ডায়াল করে অভিযোগ জানালেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি বলে অভিযোগ। শুক্রবার ভোরে সেই আসর শেষ হয়। আসর শেষ হওয়ার পরই মঞ্চ ভেঙ্গে ফেলা হয়।উদ্যোক্তাদের কারও নাগাল পাওয়া যায়নি।

রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির সহ সভাপতি মানস ঘোষ জানিয়েছেন, এই ঘটনা কোনও ভাবেই মানা যাবে না।এলাকায় সংস্কৃতি নষ্ট হচ্ছে। উদ্যোক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ সুপার সুমিত কুমার ফোনে জানিয়েছেন, তাদের কাছে এধরনের কোনও অভিযোগ নেই। কেউ ১০০ নম্বর ডায়ালে ফোন করলে থানা ফাঁড়িতে কেন অভিযোগ জানায়নি তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে পুলিশ সুপার।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here