উদয়নারায়ণপুরে বোমা বিস্ফোরণ, মৃত ১, আহত ৬ দুষ্কৃতী

আমাদের ভারত, হাওড়া, ৩০ জুন: খুনের মামলার সাক্ষীদের উপর হামলা করতে এসে বোমা বিস্ফোরণে মৃত্যু হল এক দুষ্কৃতীর। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার গভীর রাতে উদয়নারায়ণপুরের বিধিচন্দ্রপুর গ্রামের গুমগড় এলাকায়। মৃত দুষ্কৃতীর নাম সাদ্দাম মল্লিক (২৬)। বাড়ি বাউড়িয়ায়। ঘটনায় আরোও ৬ দুষ্কৃতী মারাত্মক জখম অবস্থায় উদয়নারায়ণপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি।

জানা গেছে, ২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে বিধিচন্দ্রপুর গ্রামের তৃণমূল বুথ সভাপতি শেখ হালিমকে গুলি করে খুনের অভিযোগ ওঠে শেখ আফসারের বিরুদ্ধে। ঘটনায় পুলিশ তদন্তে নেমে আফসারকে গ্রেফতার করে এবং তার জেল হয়। স্থানীয় সূত্রে খবর, সম্প্রতি আফসার জেল থেকে জামিনে ছাড়া পেয়ে গ্রামে ফিরে মামলার সাক্ষীদের হুমকি দিতে থাকে এমনকি মামলা তুলে নেওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকে। অভিযোগ, মামলার সাক্ষীরা আফসারের হুমকিকে আমল না দেওয়ায় আফসার তাদের উপর হামলার পরিকল্পনা করে। সেইমতো সোমবার রাতে ১৮/২০ জন বহিরাগত দুষ্কৃতী আগ্নেয়াস্ত্র বোমা নিয়ে গুমগড়ের একটি ফাঁকা মাঠের মধ্যে পাম্প হাউসের কাছে জড়ো হয়। রাতে পুলিশ বিষয়টি জানতে পারলে ঘটনাস্থলে পৌঁছলে দুষ্কৃতীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা ছোড়ে। পুলিশ দুষ্কৃতীদের তাড়া করলে তারা পালিয়ে যাওয়ার সময় তাদের সঙ্গে থাকা বোমায় বিস্ফোরণ ঘটে। ঘটনায় ৫ জন জখম হয়ে ঘটনাস্থল লুটিয়ে পড়ে। বাকিরা পালিয়ে যায়। পুলিশ আহত ৫ জনকে গ্রেফতার করে উদয়নারায়ণপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে মঙ্গলবার সকালে সাদ্দাম মল্লিকের মৃত্যু হয়। পরে মঙ্গলবার সকালে এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে আরো দুই দুষ্কৃতীকে পুলিশ গ্রেফতার করে।

এদিকে এই ঘটনার পর মঙ্গলবার দুপুরে এলাকায় যান হাওড়া গ্রামীণ জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশীষ মৌর্য, ডেপুটি পুলিশ সুপার কৃষ্ণেন্দু ঘোষ দস্তিদার। তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং কিছু নমুনা সংগ্রহ করেন। পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান দুষ্কৃতীরা গ্রামে ঢোকার খবর পাওয়ার পর পুলিশ তাদের ধরতে এলে পুলিশের উপর হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। পরে তাদের সঙ্গে থাকা বোমা বিস্ফোরণে ৭ জন আহত হয়। তিনি জানান, কি কারণে দুষ্কৃতীরা জড়ো হয়েছিল সেটা তদন্ত করে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি বাকি দুষ্কৃতীদের খোঁজে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।

উদয়নারায়ভপুরের বিধায়ক সমীর পাঁজা জানান, গ্রামে একটা আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হওয়ায় পুলিশকে বলা হয়েছে গ্রামবাসীদের নিরাপত্তা দিতে। পাশাপাশি গ্রামের মানুষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here