মাটি কাটার টোপ দিয়ে গণধর্ষণ কালীঘাটে, ধৃত আরও ১ কিশোর

সৌভিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা, ৩০ নভেম্বর: কালীঘাটে দুই কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে শুক্রবারই গ্রেফতার করা হয়েছিল এক কিশোর এবং এক যুবককে। এবার ফেরার আরও এক নাবালককেও গ্রেফতার করল কালীঘাট থানার পুলিশ। ওই নাবালককেও শনিবার জুভেনাইল জাস্টিস বোর্ডে পেশ করা হয়েছে। পঞ্চসায়র থেকে কালীঘাট, বারবার গণধর্ষণের মত ঘৃণ্য অপরাধে নাবালকদের যুক্ত থাকার ঘটনা কপালে চিন্তার ভাঁজ বাড়িয়েছে পুলিশের।

পুলিশ সূত্রে খবর, নির্যাতিতা ওই দুই নাবালিকাই কালীঘাট মন্দিরের কাছে ফুটপাথে থাকে। তাদের বয়স ১৩ ও ১৫ বছর। ঘটনায় অভিযুক্তেরাও মন্দিরের আশেপাশেই থাকে।

মন্দিরে পুজো দিতে আসা পুণ্যার্থীদের মানত পূর্ণ করার জন্য ছাগবলি দেওয়ার সময় অভিযুক্তরা সাহায্যকারী হিসাবে কাজ করে বলে তদন্তে জানতে পেরেছে পুলিশ। কালীঘাট মন্দিরের পূজার উপচারের জন্য আদি গঙ্গার মাটিও অনেক সময় প্রয়োজন হয়। এই অভিযুক্তরা সেই মাটিও সংগ্রহ করে পুণ্যার্থীদের কাছে বিক্রি করে। সেই কারণেই ওই দু’জন নাবালিকাকেও মাটি কাটার টোপ দিয়ে নিয়ে গিয়েছিল এরা দু’জনে। বিনিময়ে ভালো টাকা পাওয়া যাবে বলেও জানিয়েছিল।

ওই দুই নির্যাতিতা জানায়, কালীঘাট মন্দিরের মত পুণ্যস্থলে ওই তিনজন যে তাদের সঙ্গে এরকম ঘটনা করবে, তা তারা স্বপ্নেও ভাবতে পারেনি। আদি গঙ্গার পাশে ওই জায়গায় পৌঁছাতেই পিছন থেকে জাপটে ধরে নারকীয় অত্যাচার চালায়। ঘটনার পর অভিযুক্তরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here