কেশপুরে মুক্তধারার উদ্যোগে অনলাইন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও ত্রাণ বিতরণ

আমাদের ভারত, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৩ এপ্রিল: করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউনে সামাজিক দূরত্বের একঘেয়েমি কাটিয়ে কিছুটা মুক্ত বাতাস দিতে গোটা
দেশজুড়ে অন্যান্য সমাজসেবী সংগঠনের মত এগিয়ে এসেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশপুর ব্লকের আনন্দপুরের “মুক্তধারা”। মানবসেবার লক্ষ্যকে সামনে রেখে সংস্কৃতির চর্চার মধ্য দিয়ে নিজেদের অন্য ভাবে মেলে ধরেছে তারা।

“মুক্তধারা” আয়োজন করেছিল “কোভিড-বনাম-কৃষ্টি ” শীর্ষক অনলাইন সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা। এটি নিছক একটি সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ছিল না৷ “পৃথিবীর গভীরতম অসুখ”-এর কালে ঘরবন্দি মানুষকে সৃজনশীল কাজে সংযুক্ত করে তাদের মানসিক সক্ষমতা বজায় রাখা এবং এই প্রতিযোগিতার প্রবেশ মূল্য বাবদ সংগ্রহীত অর্থের সহযোগিতা ও নিজেদের অনুদানের মাধ্যমে এলাকার গরিব ও দুঃস্থ মানুষদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা, এই দুই উদ্দেশ্যকে সামনে রেখেই এই প্রতিযোগিতার আয়োজন। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এক অভিনব সুযোগ
সবাইকে করে দিল মুক্তধারা।

“দিন আনা দিন খাওয়া” মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে প্রায় ৭০টি পরিবার ও ১০জন ভবঘুরেকে শুকনো খাবার দেয় তারা। চাল, ডাল, আলু, সোয়াবিন, সাবান, মুড়ি ও নিজেদের তৈরি মাস্ক তুলে দেয় তারা। পাশাপাশি নিয়মিত হাত ধোয়া, মাস্কের ব্যবহারের কথা প্রচার করে মানুষকে সচেতনতার বার্তা দেন আনন্দধারার সদস্যরা। আনন্দধারার পক্ষ থেকে অনলাইনে সঙ্গীত, নৃত্য, অঙ্কন, আবৃত্তি, স্বরচিত কবিতা, প্রবন্ধ প্রতিযোগিতার আয়োজন হয়। দুই মেদিনীপুর, হাওড়া, হুগলী, ঝাড়গ্রাম, কলকাতা, পুরুলিয়া, বর্ধমান বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রতিযোগীরা এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। প্রতিযোগীদের অনলাইনে শংসাপত্র প্রদান করা হয়েছে। মুক্তধারার পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাঁরা আগামী দিনেও অবক্ষয়িত পরিবেশ, সমাজ ও সংস্কৃতিকে উদ্ধারের কাজ চালিয়ে যাবেন এবং অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করবেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here