আমাদের খাদ্যসাথীই যথেষ্ট, কেন্দ্রের ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ প্রকল্পের দরকার নেই: খাদ্যমন্ত্রী

রাজেন রায়, কলকাতা, ১৫ মে: রাজ্যের নিজস্ব ‘খাদ্যসাথী’ প্রকল্প রয়েছে। তাই কেন্দ্রের সদ্য ঘোষিত ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ প্রকল্পে পশ্চিমবঙ্গের যোগ দেওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। শুক্রবার একথা স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

তিনি বলেন, “আমাদের সরকারের ৬-৭ মাস আগেই সিদ্ধান্ত হয়ে গিয়েছে, আমরা এই প্রকল্পটায় নেই। রাজ্যের নিজস্ব চালু হওয়া ‘খাদ্যসাথী’ প্রকল্পে ৯ কোটি মানুষ সুবিধা পান। তাই এখানে আলাদা করে কিছু করার নেই।’

তবে কেন্দ্রের যে খাদ্যশস্য দেওয়ার কথা, তাও তারা ঠিকঠাক দিচ্ছে না বলে দাবি করেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী পশ্চিমবঙ্গকে ৩ মাস মুসুর ডাল দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন। এখন প্রতি মাসে রাজ্যে মুসুর ডাল লাগে ১৪, ৪৩০ মেট্রিক টন। অর্থাৎ ৩ মাসে মোট ডাল লাগবে ৪৩,২৯০ মেট্রিক টন। কিন্তু ন্যাফেড এখনও পর্যন্ত পেয়েছে মাত্র ১৩,২৭০ মেট্রিক টন, অর্থাৎ ১ মাসের ডালও হাতে পাইনি। পুরো পরিমাণ ডাল না পেলে কিভাবে ডাল সরবরাহ করব?’

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার ‘এক দেশ, এক রেশন কার্ড’ চালুর কথা ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। তিনি জানান, চলতি বছরের আগস্ট থেকে এই প্রকল্প চালু হলে ২৩ টি রাজ্যের রেশন উপভোক্তাদের ৮৩ শতাংশ মানুষ উপকৃত হবেন। সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের আগামী দু’মাস বিনামূল্যে খাদ্যশস্য সরবারহ করা হবে। রেশন কার্ড নেই এমন পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্যও মাসে মাথা পিছু ৫ কেজি গম বা চাল এবং পরিবার পিছু ১ কেজি ডাল দেওয়া হবে। তাঁরাও ২ মাস এই পরিষেবা পাবেন। কিন্তু কেন্দ্র যা বলেছে, তার ২০ শতাংশ খাদ্যশস্যও রাজ্যকে পাঠায়নি বলে দাবি করেন খাদ্যমন্ত্রী। আগে কেন্দ্র সেই কাজ ঠিক ঠাক পালন করুক বলে খাদ্যমন্ত্রীর দাবি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here